যুক্তরাজ্য

করোনার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে ব্রিটিশ অর্থনীতিতে : সতর্ক করলেন চ্যান্সেলার

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : করোনা ভাইরাস চলে গেলেও এর নেতিবাচক প্রভাব কাটিয়ে ব্রিটিশ অর্থনীতি তাৎক্ষনিকভাবে মেরুদন্ড সোজা করে দাঁড়াতে পারবে না বলে সতর্ক করেছেন চ্যান্সেলার ঋষি সোনাক। করোনা মুক্ত হয়ে অর্থনীতির ক্ষেত্রে ‘ভি’ চিহ্ন দেখানো উচিত হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঙ্গলবার লর্ডস ইকোনমিক কমিটির সামনে এসব কথা বলেন চ্যান্সেলার ঋষি সোনাক। এ সময় তিনি বলেন, ২৩ মার্চ লকডাউনে যাওয়ার পর থেকে ব্রিটিশ অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। অর্থনীতিতে অনাকাঙ্খিত এক ধরনের মন্দা বয়ে যাচ্ছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

কমিটিকে চ্যান্সেলার জানান, লকডাউন শুরুর পর থেকে সরকারের ঘোষিত ফিউরলাফ স্কীমে মঙ্গলবার পর্যন্ত ১১ বিলিয়ন পাউন্ডের বেশি ক্লেইম করা হয়েছে। এই স্কীমের মাধ্যমে সরকার বিভিন্ন কোম্পানীর স্টাফদের নিয়মিত ( সর্বোচ্চ মাসিক বেতন ২ হাজার ৫শ পাউন্ড পর্যন্ত) বেতনের ৮০ শতাংশ পরিশোধ করে যাচ্ছে লকডাউনের পর থেকে।

এছাড়া করোনা সংকট মোকাবিলা করতে হাজার হাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরকারের কাছ থেকে লোন নেওয়ার জন্যে আবেদন করেছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত এই লোনের পরিমান প্রায় ২২ বিলিয়ন পাউন্ডের বেশি  আবেদন পড়েছে বলেও তিনি জানান। যা ব্রিটিশ অর্থনীতির লভ্যাংশের প্রায় ৯০ শতাংশ।

চ্যান্সেলার জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সবচাইতে বেশি চাকুরীচ্যুত হয়েছে দেশের তরুন সমাজ। দেশের অর্থনীতি এবং সামাজিক ভারসাম্য বজায় রাখতে করোনার প্রভাবে চাকুরীচ্যুতদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়া সরকারের দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেন চ্যান্সেলাক ঋষি সোনাক।

Related Articles

Back to top button