বিনোদন

ট্রোলে অতিষ্ঠ কারিনা-আলিয়া

গত দশ দিন ধরে ক্রমাগত ট্রোলড হচ্ছেন কারিনা কাপুর খান ও আলিয়া ভাট। স্বজনপোষণের যে অভিযোগ উঠেছে, তাতে স্টার কিডরা নিশানা হচ্ছেন। অনেক তারকা এরইমধ্যে টুইটার ছেড়েছেন। ট্রোলদের হাত থেকে রেহাই মিলছে না ইনস্টাগ্রামেও। সেখানে তারকাদের কমেন্ট বক্স, ম্যাসেজ বক্স ভরে যাচ্ছে নেতিবাচক মন্তব্যে। অনেক ক্ষেত্রেই তা গালিগালাজের পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। যে কারণে কারিনা ও আলিয়ারা তাদের কমেন্ট বক্সে লিমিটেড অ্যাকসেস করে দিয়েছেন। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সংখ্যক ম্যাসেজই সেখানে আসতে পারবে।

এদের পোস্টে কমেন্ট করতে গেলে দেখাবে, কমেন্টস অন দিস পোস্ট হ্যাভ বিন লিমিটেড। এই ধরনের ফিল্টার থাকার ফলে যে কেউ আর তাদের প্রোফাইলে কমেন্ট করতে পারবে না। ট্রোলিংয়ের হাত থেকে বাঁচতে এই পথই নিয়েছেন সোনম, করণ, সোনাক্ষীর মতো তারকারাও। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন একতা কাপুরও। সুশান্তকে প্রথম সুযোগ দেওয়া সত্ত্বেও তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনিও কমেন্ট বক্স ফিল্টার করেছেন।

তবে সব তারকা যে এই পন্থা নিয়েছেন, এমন নয়। সুশান্তের মৃত্যুর পরে সালমান খানও ট্রোলড হয়েছেন। কিন্তু তিনি অ্যাকসেস লিমিটেড করেননি। এ ক্ষেত্রে সালমান মুখ না খুলে তার ভক্তদের সংযত আচরণ করতে বলেছেন।

দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং, আনুশকা শর্মা, হৃতিক রোশন, শ্রদ্ধা কাপুরের অ্যাকাউন্ট আগের মতোই রয়েছে। মূলত সুশান্তের মৃত্যুর নেপথ্য কারণ হিসেবে যারা নেটিজ়েনের রোষের মুখে পড়েছেন, তারাই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে এই মুহূর্তে দূরত্ব বজায় রাখছেন। অন্য দিকে ইনস্টাগ্রাম থেকে ‘রিমেম্বারিং’ করে দেওয়া সুশান্তের অ্যাকাউন্টের ভক্তসংখ্যা উত্তরোত্তর বাড়ছে। ১২.৪ মিলিয়ন থেকে সুশান্তের ইনস্টা-ফলোয়ারের সংখ্যা বেড়ে ১৩.৮-এ দাঁড়িয়েছে।

Related Articles

Back to top button