যুক্তরাজ্য

করোনা সংকট মোকাবেলায় ৩০ বিলিয়ন পাউন্ডের গ্রীস্মকালীন বাজেট দিলেন ব্রিটিশ চ্যান্সেলার

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : করোনা মহামারীতে তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে বুধবার গ্রীস্মকালীন বাজেট দিয়েছেন চ্যান্সেলার ঋষি সোনাক। করোনায় সংকটে থাকা অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে নতুন করে বিভিন্নখাতে প্রনোদনা দিয়ে প্রায় ৩০ বিলিয়ন পাউন্ডের গ্রীস্মকালীন বাজেট ঘোষণা করেন চ্যান্সেলার। বেকারত্ব সামাল দিতে ৯ দশকিম ৪ বিলিয়ন পাউন্ডের বোনাস স্কীম ঘোষণার পর পাশাপাশি হসপিটালিটিখাতে ভিএটি কমানোর ঘোষণা দিয়েছেন চ্যান্সেলার। বাজেটে বিশেষ সুবিধা রয়েছে বাড়ির মালিকদের জন্যে। কমানো হয়েছে স্টাম্প ডিউটি।
পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, প্রায় ৯ মিলিয়ন ওয়ার্কারের ফারলো স্কীম শেষ হবে অক্টোবরে। এরপর স্টাফদের কাজে ফিরিয়ে নিলে জানুয়ারী পর্যন্ত প্রতি স্টাফের জন্যে এমপ্লয়ারকে ১ হাজার পাউন্ড বোনাস দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন চ্যান্সোলার।
একই সঙ্গে ১৬ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের জন্যে কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে কিকস্টার্ট নামে  ২ দশমিক ১ বিলিয়ন পাউন্ডের একটি স্কীম ঘোষণা করেন চ্যান্সেলার।

এছাড়া এখন থেকে আগামী ৩১ শে মার্চের ভেতওে ১শ২৫ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ৫শ হাজার পাউন্ডের প্রোপার্টির স্টাম্প ডিউটি রাখা হয়েছে মাত্র সাড়ে ৪ হাজার পাউন্ড। অন্যদিকে এন্যার্জি সেইভিং বাড়ির সংস্কারের জন্যে বাড়ির মালিকদের সর্বোচ্চ ৫ হাজার পাউন্ডের ভাউচার প্রদান করবে সরকার। এ জন্য ২ বিলিয়ন পাউন্ডের গ্রান্ট স্কীম ঘোষণা করেছেন চ্যান্সেলার।
এদিকে লেবার পাটিসহ বিরোধী দলগুলোর পক্ষ থেকে সরকারের গ্রীস্মকালিন বাজেটের সমালোচনা করা হয়েছে।

করোনা মহামারী শুরুর পর থেকে ফারলো এবং বিভিন্ন লোন স্কীমের মাধ্যমে এমপ্লয়ার এবং এমপ্লয়ীদের সহযোগিতা করে আসছে সরকার। তারপরেও প্রায় প্রতিদিন জব ছাটাইয়ের ঘোষণা আসছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে। বেকারত্বের সংখ্যা বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই বিভিন্নভাবে অর্থনৈতিক প্রনোদনা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে গ্রীস্মকালীন এই বাজেট বক্তৃতায়।

Related Articles

Back to top button