যুক্তরাজ্য

খুলে দেওয়া হলো ব্রিটেনের ইউনিভার্সিটি : পরতে হবে মাক্স এবং মানতে হবে সামাজিক দূরত্ব

মো: রেজাউল করিম মৃধা ॥ দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর খুলে দেওয়া হলো ব্রিটেনের ইউনিভার্সিটিগুলি। তবে হলের ভেতরে পরতে মাস্ক এবং সামাজিক দুরত্ব। বন্ধ থাকবে বারগুলি।

নটিংহাম ইউনিভার্সিটির রেজিস্টার প্রফেসর ড: পাওল গ্রেয়েটিক্স বলেন, “সোসাল ডিস্টেন্স রক্ষা করে স্বল্প সংখ্যক শিক্ষার্থী নিয়ে প্রয়োজনে সিফ্ট বাড়াতে হবে। তবে সোসাল ডিস্টেন্স রক্ষা করেই ক্লাস হবে। শিক্ষার্থীদের মুখে মাক্স বাধ্যতামূলক সেই সাথে বন্ধ থাকবে বার, কাফে কিম্বা খাবারের রেস্টুরেন্ট এবং গেদারিং হতে বিরত থাকতে হবে”।

৪০ হাজার শিক্ষার্থী নিয়ে এই আওতায় ক্লাস শুরু করতে যাচ্ছে ইউনিভার্সিটিগুলি। তবে যে বিষয়ের উপর বেশী গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।
যেমন:
১/ শিক্ষার্থী বা ছাত্র/ছাত্রীদের অবশ্যই নিজেদের প্রটেক্ট বা সেইফ রাখতে হবে।
২/ অন লাইনের মাধ্যমে সেশন ফি পরিশোধ করতে হবে।
৩/ চাইনিজ স্টুডেন্টদের অবশ্যই বেশী সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। যেমন কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট , ইনস্যুরেন্সসহ ইউনিভার্সিটিগুলির গাইড লাইন্স মেনে চলতে হবে।
৪/ ১০ জন শিক্ষার্থী এক সাথে ক্লাস করলে সামাজিক দূরুত্বে গুরুত্ব কম দেওয়া হবে তবে মুখে মাক্স থাকতে হবে।
৫/ ১৫০ টি পশু চিকিৎসা গবেষনা কেন্দ্রে ডাবল সিফটে স্বল্প সংখ্যক শিক্ষার্থী নিয়ে প্রশিক্ষন দেওয়া হচ্ছে।

এ্যাসিসটেন্স প্রফেসর সারাহ ক্রিপস বলেন, “ইউনিভার্সিটিগুলি বন্ধ থাকলেও ক্লাস বন্ধ নেই। জুমের মাধ্যমে, ইমেইলের মাধ্যমে, ইস্ট্রামইয়াড এর মাধ্যমে অন লাইনে ক্লাস হচ্ছে । তবে ফেইজ টু ফেইজ দেখা হচ্ছে না এতে টিচার এবং স্টুডেন্টদের মধ্যে গ্যাপ সৃস্টি হচ্ছে,”।

অন লাইনে ক্লাস হলেও প্রাকটিক্যাল ক্লাস করার জন্য অবশ্যই ইউনিভার্সিটিতে ক্লাসে আসতে হবে। নটিংহাম ইউনিভার্সিটিতে পশু বিভাগের শিক্ষার্থীদের হাতে কলমে প্রাকটিক্যাল প্রশিক্ষনের জন্য গবেষনার জন্য ডবল সিফটে প্রশিক্ষন দেওয়া হচ্ছে।

করোনাভাইরস মহামারির কারনে দীর্ঘ দিন বন্ধ ছিল ইউনিভার্সিটি সহ সকল শিক্ষা প্রতিস্টান তবে বিভিন্ন পর্যায়ে ধীরে ধীরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খোলা হচ্ছে। সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলিতে পুরোপুরি ভাবে ক্লাস। আবার শিক্ষার্থীদের পদচারনায় মুখরিত হবে সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে সব ধরনের সামাজিক অনুস্টান , গেট টুগেদার বন্ধ থাকবে।

ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্টরা গেট টুগেদারের বৃহৎ আয়োজন করেও সফল হতে পারে নি। সকল ইউনিভার্সিটির সকল ধরনের গেট টুগেদার অনুস্ঠান আপাতত বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। ইউনিভার্সিটিতে ক্লাস হবে তবে সীমিত আকারে মুখে মাক্স পরে সোসাল ডিস্টেন্স রক্ষা করে।

Related Articles

Back to top button