সিলেট

ওসমানীনগরে বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৬ জন নিহত

সিলেট অফিস  : সিলেটের ওসমানীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৪ জনসহ ৬ জন নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২ জন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভাঙ্গা নামক স্থানে মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- মৌলভীবাজার জেলার সদর উপজেলার সাধুহাটি বাদরাকোনার আমিদা বেগম (৩০), মেয়ে খাদিজা (২), বোনের মেয়ে আরিফা বেগম (১২) ও কারিমা বেগম (৪) এবং গাড়ির চালক জুনেদ (৩২) ও তার সহযোগী (২২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী মামুন পরিবাহনে একটি বাস ওসমানীনগর উপজেলার বেগমপুরে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সিএনজি অটোরিকশার সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার ২ জন যাত্রী ও চালক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। গুরুতর আহত আরো ৪ জনকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নেওয়ার পথেই ২ জন মারা যান। হাসপাতালে পৌঁছার পর মারা যায় শিশু কারিমা। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২ জন।

খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানার ওসি এরশাদুল হকের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এব্যাপারে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার কায়সার খোকন বলেন, ওসমানীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহত ৭ জনকে ওসমানী মেডিকেলে নিয়ে আসা হয়। তাদের মধ্যে নিহত ৫ জনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

এদিকে মর্মান্তিক এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন সড়কে বেরিকেড দিয়ে বিক্ষোভ করেন। এসময় উভয় পাশে আটকা পড়ে অসংখ্য যানবাহন।

ওসমানীনগর থানার ওসি শ্যামল বণিক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেগমপুর নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হয়েছেন। পরে মারা যান আরোপ ৩ জন।

এব্যাপারে সিলেট জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন বলেন, দুর্ঘটনার সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুটি আটক করা হয়েছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Related Articles

Back to top button