বাংলাদেশ

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়েছে, কমেছে আক্রান্ত

ব্রিট বাংলা ডেস্ক : দেশে করোনা ভাইরাস শনাক্তের ১৫৯তম দিনে গত ২৪ ঘণ্টায় এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ও হার কমেছে। বেড়েছে সুস্থতার হারও। একই সঙ্গে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে।

বিগত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ১৬২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২ হাজার ৬১৭ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বুধবারের চেয়ে গতকাল ৩৭৮ জন কম শনাক্ত হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ।

আগের দিন এ হার ছিল ২০ দশমিক ৩০ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে গতকাল শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৪২ শতাংশ কম। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশে এ পর্যন্ত মোট ১৩ লাখ ১৫ হাজার ৯০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২ লাখ ৬৯ হাজার ১১৫ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ৪৪ জন মারা গেছেন। বুধবারের চেয়ে গতকাল দুজন বেশি মারা যান। এখন পর্যন্ত দেশে এ ভাইরাসে মারা গেছেন ৩ হাজার ৫৫৭ জন। করোনা শনাক্তের বিবেচনায় গতকাল মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। গত ৫ আগস্ট থেকে মৃত্যুর একই হার বিদ্যমান রয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতাল এবং বাসায় মিলিয়ে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৮২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৪ হাজার ৮৭১ জন। গতকাল শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ৫৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে গতকাল সুস্থতার হার শূন্য দশমিক ১১ শতাংশ বেশি।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয় ১২ হাজার ৮৯২ জনের। আগের দিন সংগ্রহ করা হয়েছিল ১৪ হাজার ৫৫০ জনের। বুধবারের চেয়ে গতকাল ১ হাজার ৬৫৮টি নমুনা কম সংগ্রহ করা হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৮৬টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা হয় ১৩ হাজার ১৬২ জনের।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত একদিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ এবং ১৩ জন নারী। ৪১ জন হাসপাতালে এবং তিন জন বাড়িতে মারা গেছেন। নিহতদের ২৫ জনের বয়স ৬০ বছরের বেশি। ১১ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, সাত জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, এক জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছিল।

১৯ জন ঢাকা বিভাগের, ছয জন চট্টগ্রাম বিভাগের, তিন জন রাজশাহী বিভঅগের, সাত জন খুলনা বিভাগের, তিন জন বরিশাল, চার জন সিলেট ও দুই জন রংপুর বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। দেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ৩ হাজার ৫৫৭ জনের মধ্যে ২ হাজার ৮১৩ জন পুরুষ এবং ৭৪৪ জন নারী। তাদের মধ্যে ১ হাজার ৬৯১ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি।

এছাড়া ১ হাজার ৮ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৪৮৭ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, ২২৭ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে, ৯১ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে, ৩৪ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং ১৯ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম। এর মধ্যে ১ হাজার ৭০০ জন ঢাকা বিভাগের, ৮২৫ জন চট্টগ্রাম, ২২৯ জন রাজশাহী, ২৭৮ জন খুলনা, ১৩৮ জন বরিশাল, ১৬৬ জন সিলেট, ১৪৩ জন রংপুর ও ৭৮ জন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা।

Related Articles

Back to top button