যুক্তরাজ্য

ব্রিটেনের প্রায় ৮ মিলিয়ন মানুষ কঠোর লকডাউনের কবলে পড়তে যাচ্ছেন

মোহাম্মদ রেজাউল করিম মৃধা : ইংল্যান্ড এবং স্কটল্যান্ডে করোনার সংক্রমিত হচ্ছে আশঙ্কাজনক হারে। গত সপ্তাহে ইংল্যান্ডের প্রায় ৬৩টি বারা কাউন্সিলে সংক্রমনের হার প্রতি ১ লাখে ২০ জনের উপরে। এর মধ্যে সবচাইতে বেশি সংক্রমিত হচ্ছে বার্মিংহ্যামে। এর আগে বেশি ছিল বল্টনে। বস্টনের পর বার্মিংহ্যামেও কঠোর লকডাউন আরোপ হতে যাচ্ছে। এদিকে ইংল্যান্ডের পর স্কটল্যান্ডে ব্যাপক আকারে সংক্রমিত হচ্ছে করোনা ভাইরাস।

স্কটল্যান্ডের প্রতি ৩ জনের মধ্যে একজন এবং ইংল্যান্ডের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ১ জনকে করোনা কঠিন লকডাউনের মধ্যে জীবন যাপন করতে হচ্ছে।

আশঙ্কাজনকহারে করোনা সংক্রমিত হওয়ায় ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসের বার্মিংহ্যাম, স্যান্ডওয়েল এবং সলিহলে মঙ্গলবার থেকে এক বাড়ির লোক অন্য বাড়ির লোকের সঙ্গে  দেখা স্বাক্ষাত করতে পারবে না। অর্থাৎ ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসে ৫ দশমিক ৮ মিলিয়ন মানুষকে নতুন লকডাউন নিয়মের মধ্যে বসবাস করতে হবে।

অন্যদিকে শুক্রবার রাত থেকেই স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোর লানার্কশায়ারে লকডাউন কঠোর করা হয়েছে। এই এলাকায় গত সপ্তাহে ২শ ৫ জন করোনা রোগি শনাক্ত হওয়ায় নতুন এই নিয়ম আরোপ করা হয়। করোনা সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় এক বাড়ি থেকে অন্য বাড়ির সদস্যের দেখা স্বাক্ষাতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এই লকডাউনের কবলে রয়েছেন প্রায় ১ দশমিক ৭৬ মিলিয়ন মানুষ।

এদিকে ওয়েলসে সোমবার থেকে দোকান এবং অন্যান্য ইনডোর পাবলিক স্পেসে সবার জন্য মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অনুর্ধ্ব ১১ বছর বয়সীদের জন্যে এই নিয়ম কার্যকর হবে না। মাস্ক না পরলে সর্বোচ্চ দু হাজার পাউন্ড জরিমানা গুণতে হবে। এছাড়া সোমবার থেকে ওয়েলসে ঘরের ভেতরে ভিন্ন পরিবারের ছ’ জনের বেশি জমায়েতের উপর নিধেষাধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। নিয়ম ভঙ্গকারীদের ঘটনাস্থলেই জরিমানা আরোপ করতে পারবে পুলিশ। তবে ঘরের বাইরে সর্বোচ্চ ৩০ জন জমায়েত হতে পারবেন ওয়েলসে। প্রায় ১শ ৮১ হাজার মানুষকে এই নিয়ম মেনে চলতে হবে।

উল্লেখ্য বৃটেনে গত চব্বিশ ঘন্টায় আরো ৩ হাজার ৫শ ৩৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। চব্বিশ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরো ৬ জনের।

Related Articles

Back to top button