খেলাধুলা

বিদায়ের আগেই ‘বিদায়’ মেনে নিয়েছেন ধোনি

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: আইপিএলের ত্রয়োদশ আসরটা একেবারেই ভালো যাচ্ছে না মহেন্দ্র সিংহ ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসের। গতকাল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে ১০ উইকেটে হেরে যাওয়ায় প্লে-অফে যাওয়ার আশা কার্যত শেষ হয়ে গেছে হলুদ-বাহিনীর। আইপিএলের ইতিহাসে এই প্রথম প্লে অফে যেতে ব্যর্থ হল চেন্নাই সুপার কিংস। দলের এই হতাশাজনক পারফরম্যান্সে দুঃখপ্রকাশ করে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় মেনে নিয়েছেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।

এখনো পর্যন্ত খেলা ১১ ম্যাচে চেন্নাই জিতেছে মাত্র ৩টিতে, বাকি ৮ ম্যাচের পরাজয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৮ নম্বরেই অবস্থান করছে তারা। কাগজে-কলমের হিসাবে এখনও সেরা চারে খেলার সূক্ষ্ম সুযোগ রয়েছে আইপিএলের তিনবারের চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু বাস্তবিক বিচারে মাঠের পারফরম্যান্স হিসেব করলে প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়াই যেন এখন চেন্নাইয়ের নিয়তি। অবশ্য বাদ পড়া নিশ্চিত হওয়ার আগেই যেনো বিদায় মেনে নিয়েছেন চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি।

তাই তো শুক্রবার মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের কাছে ১০ উইকেটে পরাজয়ের লজ্জার রেকর্ড গড়ার পর, ধোনি সাফ বলে দিয়েছেন শেষ তিন ম্যাচে তারা মূলত আগামী মৌসুমের প্রস্তুতি নেবেন। তার ধারণা, এবার আর সেরা চারে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই চেন্নাইয়ের। তাই বাকি ম্যাচগুলোতে তরুণ এবং যারা এখনো সুযোগ পায়নি, তাদের খেলানোর কথাই ভাবছেন তিনি।

ম্যাচ পরবর্তী প্রেজেন্টেশনে ধোনি বলেন, ‘আমাদের জন্য এখন গুরুত্বপূর্ণ হলো পরের বছরের জন্য নিজেদের পরিকল্পনা স্বচ্ছ রাখা। এখনো অনেক যদি-কিন্তু রয়েছে: যেমন নিলামটা কেমন হবে, টুর্নামেন্টের ভেন্যু কোথায় হবে? এসব বিষয় নিয়ে আরো ভালোভাবে সামনের বছরের যাত্রা শুরু করতে হবে।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘একটা নির্দিষ্ট একাদশ দাঁড় করানোর লক্ষ্যে এতদিন যারা সুযোগ পায়নি, তাদের পরখ করে দেখাও জরুরি। তাদেরকে যথেষ্ট সুযোগ দিতে হবে যেন নিজেদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিতে পারে। তাই সামনের তিন ম্যাচ আদর্শ পরিস্থিতি বলা যায়। এমন পরিস্থিতিতে পড়তে ভালো লাগার কথা নয়। কিন্তু পরিস্থিতি যখন এমন হয়েছে, তাই এর সেরা ব্যবহার করাই ভালো। আর এটা অবশ্যই আমাদের আগামী বছরের প্রস্তুতির অংশ।’

উল্লেখ্য, এবার যদি সুপার ফোরের টিকিট না পায়, তাহলে আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সেরা চারের আগেই বাদ পড়ার নজির গড়বে চেন্নাই। এবারের আগে আইপিএল হয়েছে ১২ বার। ম্যাচ গড়াপেটার দায়ে দুই মৌসুমে ছিল না চেন্নাই। বাকি দশবারের মধ্যে আটবারই তারা খেলেছে ফাইনালে (চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তিনবার), অন্য দুইবার ছিল সেরা চারে। এবার সেই ধারা ব্যাহত হওয়া যেনো সময়ের ব্যাপার মাত্র।

Related Articles

Back to top button