কৌশলের লড়াই গার্দিওয়ালা-ক্লপের

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: বছর খানেক আগে লিভারপুলকে লিগে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল ম্যানচেস্টার সিটি। তার শোধটা ২০১৮ সালে এসে উসুল তো করেছেনই সঙ্গে বাড়তি আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করেছেন জার্গেন ক্লপ এবং তার দল।

চলতি বছরের এপ্রিলে সিটির বিপক্ষে ৪-৩ গোলের জয় পায় অলরেডসরা। ছিল রোমাঞ্চ ছড়ানো এক ম্যাচে। এরপর চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম লেগে ৩-০ গোলে জয় অলরেডসদের। এরপর দ্বিতীয় লেগে জয় পায় ২-১ গোলে। শোধটা চ্যাম্পিয়নস কাপে নেওয়ার সুযোগ পেয়েও নিতে পারেননি সিটি কোচ গার্দিওয়ালা। হেরে যায় ২-১ গোলে। এবার লিভারপুলের মাঠে গিয়ে কড়াই গন্ডায় হারের শোধ তোলার পালা পেপ গার্দিওয়ালার।

তবে কাজটা খুব সহজ হবে না। কারণ জার্গেন ক্লপের দলের শক্তি গতির ফুটবল। ওই গতি দিয়ে ম্যানসিটির রক্ষণভাঙতে চাইবেন তিনি। আর ম্যানসিটি থাকবে সুযোগের অপেক্ষায়। পাসের পর পাস দিয়ে এলোমেলো করে ফেলতে চাইবে ক্লপের রক্ষণভাগ। শেষ পর্যন্ত জয় কার হবে বলা শক্ত। তবে যে দলই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ুক না কেনো। কৌশল এবং মাঠে তার যথাযথ প্রয়োগের ব্যতয় ঘটা চলবে না। ভুল করার কোন সুযোগ নেই। ইংশিল লিগে ম্যানসিটি-ম্যানইউ ম্যাচে যেমন ফুটবল প্রেমীদের চোখ লেপ্টে থাকে লিভারপুল-ম্যানসিটি ম্যাচ তেমনই সাড়া জাগানিয়া।

লিগে দু’দলের মুখোমুখি ম্যাচটি এক দল থেকে আরেক দলের পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে যাওয়ারও লড়াই। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট দু’দলেরই। কেবল একটি গোলের ব্যবধানে এগিয়ে আছে ম্যানসিটি। ঘরের মাঠে ডি ব্রুইনিদের হারিয়ে তাই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকবে লিভুরপুলের। পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগটা থাকছে ম্যানসিটিরও। তবে সেই সুযোগটা সালাহ-মানে-ফিরমিনোরা নিতে পারবেন নাকি বেনার্ড সিলভা-ডি ব্রুইনিরা তা দেখা যাবে রোববার রাত ৯.৩০টায় হওয়া ম্যাচে।

লিভারপুল কোচ জার্গেন ক্লপও বললেন দারুণ এক ম্যাচ দেখার কথা। এমনকি তিনিও ম্যাচটি দেখতে মুখিয়ে আছেন বলে উল্লেখ করেন, ‘পেপ বিশ্বের সিরা কোচদের একজন। তার বিপক্ষে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়া সবসমই কঠিন। আর এজন্য তার বিপক্ষে দলের খেলা মানে দারুণ রোমাঞ্চ। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক দারুণ। কোচ হিসেবে তাকে আমি সম্মান করি।’

ক্লপ কথার লড়াইয়ে না গেলেও ম্যানসিটি কোচ পেপ কিন্তু একটু খোঁচা দিয়েছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগে লিভারপুলের কাছে ৩-০ গোলে প্রথম লেগে হারে ম্যানচেস্টার সিটি। ওই ম্যাচে অনেকগুলো সিদ্ধান্ত সিটির বিপক্ষে গেছে বলে মনে করেন পেপ। তিনি বলেন, ‘আমি এ নিয়ে কোন কথা বলতে চাই না। সবাই জানে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে কি হয়েছিল। আমি এসব নিয়ে এখন কথা বলতে চাই না।’ কথা হয়তো সাবেক বার্সেলোনা এবং বায়ার্ন মিউনিখ কোচ বলবেন। তবে সেটা ম্যাচের পরে। উচ্ছাসার কথা বলবেন নাকি হতাশার তা এখন বলা চলে না।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x