ইউকেতে স্কুল ইউনিফর্ম পরা ছাত্রীরা যৌন হয়রানী শিকার হন : ‘Third of girls’ harassed in school uniform

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : ইউকের প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন স্কুল ছাত্রী স্কুল ইউনিফর্ম পরা অবস্থায় পাবলিক প্লেস বা লোকালয়ে যৌন হয়রানীর শিকার হন। এছাড়া ইউনিফর্ম পরে জনসম্মুখে অপ্রত্যাশিত যৌন আকর্ষণে পরিণত হওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে আরো প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ ছাত্রীর।চীলড্রেনস চ্যারিটি প্লান ইন্টারন্যাশনাল ইউকের এক সার্ভে রিপোর্টে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

১৪ থেকে ২১ বছর বয়সী প্রায় ১ হাজার কিশোরী এবং মহিলার সঙ্গে কথা বলে এই রিপোর্ট করেছে সংস্থাটি। স্ট্রীটে যৌন হয়রানীকে জীবনের একটি অংশ বলেই অনেক মেয়ে মনে করেন বলে জানিয়েছেন এই সার্ভে পরিচালনার সময়।

সার্ভেতে ৬৬ শতাংশ কিশোরী এবং মহিলা জানিয়েছেন, জনসম্মুখে বা লোকালে যৌনতা বা শাররীরিক আকর্ষণের অভিজ্ঞতা রয়েছে তাদের। এছাড়া ৩৫ শতাংশ জানিয়েছেন, লোকালয়ে তাদের শরীর স্পর্শ করার বা তাদেরকে ঝাপটে ধরার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এই অভিজ্ঞতা রয়েছে আট বছর বয়সী মেয়েরও। সার্ভেতে দেখা গেছে প্রতি তিন জনের মধ্যে ১ জন স্কুল ছাত্রীর পাবলিক স্পেসে বা লোকালয়ে যৌন হয়রানীর অভিজ্ঞতা রয়েছে। স্কুল ইউনিফর্ম পরে বের হবার পর তারা এই হয়রানীর শিকার হন। তাদেরকে শাররীরিকভাবে স্পর্শ করার বা ঝাপটে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে বলে সার্ভে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। অনেকে তাদের ফটো তুলার বা ভিডিও করারও চেষ্টা করে থাকে।

এই সংস্থাটি সার্ভে রিপোর্ট প্রকাশের সাথে সাথে পাবলিক স্পেসে বা লোকালয়ে স্কুল ছাত্রীদের নিরাপত্তার জন্যে করণীয় কিছু বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছে। স্কুল ছাত্রীদের লোকালয়ে হয়রানীকে লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে কিছু ক্যাম্পেইন চালুর পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি। ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এ ধরনের হয়রানী করা যে উচিত নয়, সে বিষয়ে বেশি বেশি সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি এ ধরনের পরিস্থিতিতে কিভাবে নিরাপদে এড়িয়ে আসা যায় সে বিষয়ে ট্রেনিং এবং এ ধরনের হয়রানী থেকে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের জন্যে ছেলে ও পুরুষদের বিশেষ প্রশিক্ষণ, সেক্স রিলেশনশীপ বিষয়ে প্রশিক্ষণ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্টাফদের এসব হয়রানী প্রতিরোধে আরো বেশি দক্ষ করে তোলার পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি।

 

One in three girls in the UK has been sexually harassed in public when wearing school uniform, a new report has suggested.

And two-thirds of girls say they have experienced unwanted sexual attention in public, it adds.

The figures come from a report by children’s charity Plan International UK, which said many girls feel street harassment is “all part of growing up”.

It is calling on bystanders to challenge harassment when they see it.

The report surveyed more than 1,000 teenagers and young women aged 14 to 21, and also carried out interviews with girls and academics.

It found:

  • 66% of girls in the UK said they had experienced unwanted sexual attention or sexual or physical contact in a public place
  • 35% of girls reported receiving unwanted sexual contact such as being touched, groped or grabbed
  • Girls as young as eight years old described witnessing or experiencing harassment
  • More than one in three girls received unwanted sexual attention such as being groped, stared at, catcalled and wolf-whistled while wearing school uniform
  • One-quarter of girls said they had been filmed or photographed by a stranger without permission

The charity is calling on the government to recognise street harassment as a type of “gender-based violence”.

It has made several recommendations, including:

  • Public awareness campaigns to spread the message that street harassment “is not OK”
  • Offer training for bystanders on how to safely intervene
  • Support boys and men to change their attitudes and challenge harassment
  • Provide relationship and sex education to young people
  • Training for workers in public places (shop staff, bus drivers) on spotting harassment and reporting it

The chief executive of Plan International UK, Tanya Barron, said it was “shocking and deeply concerning” that girls who are clearly of school age are being sexually harassed.

Leave a Reply

More News from যুক্তরাজ্য

More News

Developed by: TechLoge

x