কোহলিকে আটকানোর উপায় বলে দিচ্ছেন পন্টিং

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: প্রতিপক্ষকে কীভাবে আটকাতে হবে, রিকি পন্টিংয়ের চেয়ে বা ভালো আর কেই–বা জানেন! ২২ গজে অস্ট্রেলিয়া যে অপরাজেয় হয়ে উঠেছিল, তা ওই পন্টিংয়ের মতো অধিনায়কের ক্ষুরধার মস্তিষ্কের নেতৃত্বেই। অস্ট্রেলিয়াকে দুটি বিশ্বকাপ জেতানো এই ক্রিকেটার ব্যাট-বল তুলে রেখেছেন অনেক আগেই। তবে প্রয়োজনে মাঠের বাইরে থেকে অস্ট্রেলীয় দলের নানা প্রয়োজনে কাজ করেন। ভারতের বিপক্ষে টেস্টে কীভাবে বিরাট কোহলিকে থামাতে হবে, এই নিয়ে গবেষণায় বসেছেন তিনি। কোহলিকে থামানোর জন্য পূর্বসূরিদের দিয়েছেন অনেক পরামর্শও।

৬ ডিসেম্বর অ্যাডিলেড টেস্ট দিয়ে শুরু হবে অস্ট্রেলিয়া-ভারত টেস্ট সিরিজ। আর ভারত-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট মানেই ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য বাড়তি রোমাঞ্চ। ঘরের মাঠে অস্ট্রেলীয়দের মূল ভাবনাটা কোহলিকে থামানো নিয়ে। সাবেক ক্রিকেটার ডিন জোন্সের পর পন্টিং দিলেন কোহলিকে আটকানোর পরামর্শ। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ইংল্যান্ডের এক বোলারের উদাহরণ টেনে বলেছেন, ‘কোহলিকে নিয়ে পরিকল্পনা তৈরি করতে বসলে আমি সবার আগে একটা জিনিস দেখব। অতীতে ওর বিরুদ্ধে কোন বোলারের সাফল্য সব চেয়ে বেশি আর কেন? জেমস অ্যান্ডারসনই হলো একমাত্র বোলার, যে কোহলিকে সমস্যায় ফেলেছিল। ওর বিরুদ্ধে সাফল্যও বেশি ইংল্যান্ড পেসারের।’

কোথায় বল ফেলতে হবে ও কীভাবে ফিল্ডিং সাজাতে হবে, এই বিষয়েও পরামর্শ আছে পন্টিংয়ের, ‘বল যদি মুভ না করে, তাহলে কিন্তু কোহলিকে আউট করা কঠিন হয়ে যাবে। শুরুর দিকেই বাউন্ডারি লাইনে কয়েকজন ফিল্ডারকে রাখতে হবে। যাতে ইনিংসের প্রথম দিকে সে বাউন্ডারি না পায়। তবে শুরু থেকেই একেবারে আক্রমণে যাওয়ার কিছু নেই।’

কোহলিকে চাপে রাখতে পরামর্শ আছে আরও, ‘কোহলি থার্ডম্যানে বল ঠেলে রান সংগ্রহ করতে ভালোবাসে। তাই কয়েকজন ফিল্ডারকে এমন জায়গায় রাখা হোক, যাতে কোহলি একটু ধন্দে পড়ে যায়। তৃতীয় স্লিপ বা ফ্লোটিং স্লিপকে একটু সামনে নিয়ে আসতে হবে। সে ক্ষেত্রে ক্যাচ হলে সেটা আগে পড়বে।’

অতীত অভিজ্ঞতা থেকে পন্টিং বলেছেন, ‘মিচেল জনসন কিন্তু কোহলিকে ঝামেলায় ফেলে দিয়েছিল। কখনো আগুনে বোলিং করে, কখনো আক্রমণাত্মক শরীরী ভাষায়।’

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x