সিলেটের হ্যাট্রিক, পারলেন না নাহিদ-মুহিত!

সিলেট অফিস :: সরকারের টানা তিন মেয়াদে গঠিত মন্ত্রীসভায় স্থান পেয়েছেন সিলেট জেলার কোন না কোন জনপ্রতিনিধি। সিলেট জেলা থেকে মন্ত্রীসভায় এবারে হ্যাট্রিকের সুযোগ ছিলো সদ্য সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এবং শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের। কিন্তু শেখ হাসিনার নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান পাওয়া ৪৭ জনের বেশীরভাগই নতুন। বাদ পড়েছেন নাহিদ-মুহিতসহ হেভিওয়েট মন্ত্রীরা। নাহিদ-মুহিত না পারলেও মন্ত্রীসভায় জেলা হিসেবে হ্যাট্রিক করেছে সিলেট জেলা।

২০০৯ সালে সরকার গঠনের সময় মন্ত্রিসভায় স্থান পান ৩১ জন। পরে একাধিকবার অদলবদলে এ সংখ্যা দাঁড়ায় অর্ধশতকের কাছাকাছি। দ্বিতীয় দফায় ২০১৪ সালে মন্ত্রীসভায় সদস্য ৪৪ নিয়ে শুরু হলেও শেষপর্যন্ত সেই সংখ্যা দাঁড়ায় ৫৭তে। আর এবার ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিন জন উপমন্ত্রীসহ ৪৭ জন সদস্য নিয়ে টানা ৩য় বারের মতো যাত্রা শুরু করেছে আওয়ামী সরকার।

টানা এই তিন সরকারের মন্ত্রীসভায় সিলেটসহ মাত্র ১৭টি জেলার কোন না কোন প্রতিনিধি তিনটি মন্ত্রীসভায়ই স্থান পেয়েছেন। তাই জেলা হিসেবে পর পর তিনবার মন্ত্রীসভায় স্থান পেয়ে হ্যাট্রিক করলো সিলেট জেলা।

মোট ৬টি সংসদীয় আসন নিয়ে গঠিত সিলেট জেলা। ২০০৮ সালে বর্তমান সরকারের মেয়াদে মর্যাদাপূর্ণ সিলেট-১ আসন থেকে নির্বাচিত হন আবুল মাল আব্দুল মুহিত। সরকারের গঠিত মন্ত্রীসভায় অর্থমন্ত্রী হিসেবে স্থান করে নেন সিলেটের এই কৃতি সন্তান। এছাড়াও সিলেট-৬ থেকে মন্ত্রীসভায় শিক্ষামন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পান নুরুল ইসলাম নাহিদ। ২০১৪ সালে টানা ২য় মেয়াদে সরকার গঠনের পরও তারা আবারো দ্বায়িত্ব পান।

টানা ৩য় বারের মতো সিলেট-৬ থেকে আবারো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন নুরুল ইসলাম নাহিদ। এবারো তার সামনে সুযোগ ছিলো মন্ত্রীসভায় স্থান করে নিতে। তাছাড়া, সিলেট-১ থেকে এবার ছোটভাই ড. মোমেনকে সুযোগ করে দিতে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে \’অবসর\’ নিয়েছিলেন আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তবে শেখ হাসিনা চাইলে আরো এক বছর মন্ত্রীসভায় থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। শেষপর্যন্ত, নতুন মন্ত্রীসভার ৪৭ সদস্যের মধ্যে স্থান হয়নি এই দুই মন্ত্রীর।

তবে এবারের মন্ত্রীসভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে স্থান করে নিয়েছেন সদ্য সাবেক অর্থমন্ত্রীর ছোটভাই ড.একে আব্দুল মোমেন। তিনি সিলেট-১ থেকে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। এছাড়া সিলেট-৪ থেকে নির্বাচিত ইমরান আহমদও স্থান পেয়েছেন মন্ত্রীসভায়। তিনি প্রবাসী ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পালন করবেন।

ব্যক্তি হিসেবে কেউ না পারলেও জেলা হিসেবে হ্যাট্রিক করলো সিলেট জেলা। নির্দিষ্ট করে বললে আরো একটি হ্যাট্রিক হলো সিলেট জেলার মর্যাদাপূর্ণ আসন খ্যাত সিলেট-১ এর।

প্রতিবারের মতো সিলেট জেলা তথা সিলেট বিভাগ থেকে একাধিক মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী পাওয়ায় খুশি সিলেটবাসী। তবে সিলেটবাসীর দাবী আগামীতে মন্ত্রীসভার সম্প্রসারন হলে সিলেট থেকেও যেনো এক বা একাধিক প্রতিনিধি স্থান পান।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x