কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: কুমিল্লায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৮জন নিহত হয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২৫ জন। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার দাউদকান্দি এলাকায় ৫জন, বুড়িচং এলাকায় ২জন ও আদর্শ সদর উপজেলা এলাকায় ১জন শনিবার পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত হন।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলার দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় যাত্রীবাহী সিডিএম পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক পথচারীকে চাপা দিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে পথচারী দাউদকান্দি উপজেলার ঢাকারগাঁও গ্রামের আবুল খায়েরের স্ত্রী নুরুন্নেছা (৩০), বাসযাত্রী তিতাস উপজেলার কুশিয়ারা গ্রামের মৃত শরীফ আলীর ছেলে সাগর (২৮) ও অজ্ঞাতনামা আরও এক যাত্রীসহ ৩জন নিহত হন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন বাসের কমপক্ষে ২০ যাত্রী। আহতদের উদ্ধার করে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে হাইওয়ে পুলিশের ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম জানান, শনিবার ভোর ৫টার দিকে একই উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ সংলগ্ন মোবারকপুর এলাকায় গ্রীনলাইন পরিবহনের একটি বাস কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে ধাক্কা খেলে বাসের সুপারভাইজার ও হেলপারসহ ২জন নিহত হন। নিহতরা হলেন, বাসের সুপারভাইজার কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার লালবাগ গ্রামের কায়কোবাদের ছেলে ফয়সাল (৩০) ও বাসের হেলপার মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার কাজীকান্দা গ্রামের ইদ্রিস শেখের ছেলে মনোয়ার শেখ (২৫)। এ দুর্ঘটনায় বাসের ৩ যাত্রী আহত হয়েছেন।

এছাড়া ময়নামতি হাইওয়ে থানার এসআই এখলাছ উদ্দিন জানান, শনিবার বিকাল ৩টার দিকে মহাসড়কের জেলার বুড়িচং উপজেলার কোরপাই এলাকায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখি একটি প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে ছিটকে পড়ে। এতে প্রাইভেট কারের যাত্রী টাঙ্গাইল সদর থানার পশ্চিম আকুর টাকুরপাড়া গ্রামের মৃত আশেক আলীর ছেলে মজিবুর রহমান (৫০) ও একই থানার আশেকপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে হুমায়ুন কবির (৪৮) নিহত হন। তারা এসএফএস নামক একটি এনজিও কর্মকর্তা। এ দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কারের চালকসহ ২ জন আহত হন।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, শনিবার দুপুরে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার আমতলী এলাকায় ময়নামতি হাইওয়ে থানার অদূরে হাইওয়ে পুলিশের র‌্যাকারের চাপায় পিষ্ট হয়ে আশুরি মন্ডল (২২) নামে এক নারী ঘটনাস্থলে নিহত হন। তিনি মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার খয়রামন্দা গ্রামের সজিব মন্ডলের স্ত্রী। এ বিষয়ে জানার জন্য ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমানের সরকারি মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার কল করা হলেও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। তবে মারুতি গাড়ি (ঢাকা মেট্রো-চ-১৪-১৭২৭) থেকে পড়ে গিয়ে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেন থানার এসআই এখলাছ উদ্দিন। গাড়িটি আটক করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িগুলো উদ্ধার করা হয়েছে এবং নিহতদের সকলের লাশ তাদের স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ জানিয়েছে।

Leave a Reply

More News from জাতীয়

More News

Developed by: TechLoge

x