লন্ডন মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী “মাদার অফ ডেমোক্রেসী” দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের ওপর সকল রাজনতৈকি মামলা প্রত্যাহার, কারাগারে বন্দী বিএনপির সকল নেতা-কর্মীর মুক্তির দাবীতে গত ৮ এপ্রিল, সোমবার ব্রিটিশ পার্লামেন্ট হাউজের সামনে বিক্ষোভ করেছে মহানগর বিএনপি।
যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিকের এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনগুলোর বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী এই বিক্ষোভ সমাবেশে বিভিন্ন শ্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুন প্রর্দশন করেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন। বাংলাদেশের র্বতমান স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকারের ফ্যাসিবাদী শাসনের বিরুদ্দের নানা শ্লোগানে মুখরিত করে পুরো পার্লামেন্ট স্কয়ার।
সভাপতির বক্তব্যে এম এ মালিক বলেন, “মাদার অফ ডেমোক্রেসী” বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করে করে বিনা কারণে সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে সর্ম্পূণ অন্যায়ভাবে নির্জন কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। তিনি আরও বলেন, সরকারি দলের লোকেরা ব্যাংকের আমানত ও দেশের সম্পদ লুঠ করে বিদেশে সম্পদের পাহাড় গড়ছে আর দ্রবমূল্যর ঊর্ধ্ব গতিতে দেশের সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠছে। ফ্যাসিবাদী আওয়ামী সরকারের কর্তৃত্ববাদী শাসন দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে ফেলেছে। তিনি অনতিবিলম্বে সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিশেষায়িত হাসপাতালে সুচকিৎিসা ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন। একই সাথে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের সকল মামলা প্রত্যাহারসহ সারা দেশের বিভিন্ন কারাগারে রাজবন্দী বিএনপির সকল নেতা-কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন।
বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সাবেক সহসভাপতি আলহাজ্ব তৈমুছ আলী, সাবেক যুগ্মসম্পাদক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, সাবেক সিনিয়র সদস্য মিসবাহুজ্জামান সোহেল, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, যুবদলের সভাপতি রহিম উদ্দিন, জাসাসের সভাপতি এমাদুর রহমান এমাদ, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক তাজবির চৌধুরী শিমুল, যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাছিত বাদশা, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক সহ দপ্তর সম্পাদক সেলিম আহমেদ, সাবেক সহক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সরফরাজ আহমেদ সরফু, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম বাদল, নিউহাম বিএনপির সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, কেন্ট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রুহুল ইসলাম রুলু, বিএনপিনেতা মো: শামীম আহমদ, ডক্টর তৌকির শাহ, লন্ডন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সোহেল শরীফ মোহাম্মদ করিম, লন্ডন মহানগর বিএনপির মোহাম্মদ সুমন মিয়া, মো: সাব্বির, হোসেন আহমদ, নজরুল ইসলাম, মোঃ জুবের সিদ্দিকী, মোঃ রাজিব হোসেন, রানা আহমেদ সোহেল, কাজী মুনীর হাসান, মো: আশরাফুল আলম, যুক্তরাজ্য যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক বাবর চৌধুরী, প্রবাসী কল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো: মোশাররফ হোসনে ভূঁইয়া, ইমতিয়াজ এনাম তানিম, যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জনি, লন্ডন মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাদেক আহমেদ, জাসাসের সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আরিফ আহমেদ, সাংবাদিক আহসানুল আম্বিয়া শোভন, সাবেক ছাত্রনেতা শফিউল আলম মুরাদ, আব্দুল কাদির জিলানী, মো: ফয়েজ উল্লাহ, মোঃ তারেক ইকবাল, সায়েদ আহমেদ, মোঃ মহিন উদ্দিন, আব্দুস সামাদ রাজ, নুরুল আফসার লিমন, ফজলে রহমান পিনাক, সৈয়দ জামিল আহমদ, মনোয়ার হোসেন ময়না, নুরে আলম জাহাঙ্গীর, মোঃআব্দুল আলীম, মোঃ মাহমুদুল হাসান, আবু সাদেক অপু, তারেক আলিম, মনসুর হোসেন, ছাজওয়ার হোসেন রাজেদ, ফরহাদ আহমেদ, এম এ আজিম, মারুফ আহমেদ, মোঃ আলিনুর আহমেদ, মোঃ তোফাজ্জল হোসাইন, আরিফুর রহমান খান, জাকারিয়া খান, মোঃ মাফিজুর রহমান মিটন জাহাঙ্গীর হোসেন, মোঃ মনোয়ার হোসেন, লিওন খান, আব্দুল ওয়ালি শামিম প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Leave a Reply

More News from কমিউনিটি

More News

Developed by: TechLoge

x