দেনার দায়ে মাকে সঙ্গে নিয়ে ক্রিকেটারের আত্মহত্যা!

Posted on by

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: রাতারাতি ক্রিকেটারদের জীবন বদলে দিয়েছে আইপিএল। এমন উদাহরণ ভারতে ভুরি ভুরি রয়েছে। সেই দেশেই কি না একজন ক্রিকেটারকে দেনার দায়ে আত্মহত্যা করতে হল!

কিছুদিন আগেই রাহুল দ্রাবিড় উঠতি ক্রিকেটারদের বৃত্তিমূলক শিক্ষার দাবি তুলেছিলেন। তার বক্তব্য ছিল, ক্রিকেটাররা ক্রিকেটে ব্যর্থ হলে যেন জীবিকার জন্য অন্য কোনও পথ বেছে নিতে পারেন। ক্রিকেট খেলতে খেলতে অনেক ক্রিকেটার পড়াশোনা উপেক্ষা করে বসেন। একটা সময়ের পর ক্রিকেটে ব্যর্থ হলে জীবিকা নির্বাহের আর কোনও পথ খোলা থাকে না। এই ব্যাপারে ভারতীয় বোর্ডকে ভাবনা-চিন্তা করার আর্জি জানিয়েছিলেন তিনি।

রাহুল দ্রাবিড়ের দাবি উস্কে দিল এই ঘটনা। মা ও তার ক্রিকেটার ছেলে, দুজনকেই মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় নিজ ফ্ল্যাটে। পুলিশের ধারণা, দেনার দায়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তারা। শুক্রবার রাতে মুম্বাইতে একটি ফ্ল্যাট থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন বিনোদ ও তার মা সঞ্জীবনী চৌগুলে।

২৫ বছর বয়সী বিনোদ ক্রিকটকেই ধ্যান-জ্ঞান মনে করতেন। পূর্ব ভিরারের সাইবা ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলতেন তিনি। কিন্তু ক্লাব ক্রিকেটে খেল যা উপার্জন করতে তা দিয়ে সংসার চলছিল না। ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি পার্ট টাইম চাকরিও করতে শুরু করেছিলেন বিনোদ। কিন্তু দেনার দায় মাত্রাতিরিক্তি বেড়ে গিয়েছিল।

সঞ্জীবনী চৌগুলের সঙ্গে তার স্বামীর বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছিল। ছেলেকে নিয়ে আলাদা ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন তিনি। ভিরারের নারাঙ্গিতে সাই হেরিটেজে একটি ফ্ল্যাটে ছিল তাদের ছোট সংসার। ঋণের টাকা শোধ না করতে না পেরেই তারা আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে অনুমান পুলিশের। অপমৃত্যুর একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। সূত্র: জি নিউজ

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x