পারমাণবিক বিদ্যুত কেন্দ্রে দুর্নীতির অভিযোগ, হাইকোর্টে রিট

Posted on by

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুত কেন্দ্রের আবাসন প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগের বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রবিবার এ রিট আবেদনটি দাখিল করেন।

বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর হাইকোর্ট বেঞ্চে সোমবার এ রিট আবেদনটি শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন রিট আবেদনকারী। রিট আবেদনে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত সচিব, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সচিবসহ ৬ জনকে বিবাদি করা হয়েছে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের গ্রিনসিটি প্রকল্পের ২০ ও ১৬ তলা ভবনের ১১০টি ফ্ল্যাটের জন্য অস্বাভাবিক মূল্যে আসবাবপত্র কেনা ও ভবনে উঠানোর ঘটনা ঘটেছে। এনিয়ে একটি জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হবার পর বিষয়টি তদন্তের জন্য গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীকে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে। কমিটিকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। এ অবস্থায় জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হলো।

রিট আবেদনের পর ব্যারিস্টার সুমন সাংবাদিকদের বলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুত কেন্দ্রে আবাসন প্রকল্পে কেনাকাটায় অস্বাভাবিক মূল্য ধরা হয়েছে বলে সংবাদপত্রে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এরপর সরকার এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে। সেই কমিটির প্রতি জনগণের বিশ্বাসযোগ্যতা নেই। তাই এবিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছি।

তিনি বলেন, দুর্নীতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছেন। এই প্রকল্পে যে টাকা খরচ দেখানো হয়েছে তা এ দেশের জনগণের ট্যাক্সের টাকা। তাই বিষয়টি জবাবদিহিতায় আসা উচিত।

গত ১৬ মে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি বৈদ্যুতিক চুলার দাম ধরা হয়েছে ৭ হাজার ৭শ ৪৭ টাকা এবং তা ভবনে তুলতে খরচ ধরা হয়েছে ৬হাজার ৬শ ৫০ টাকা, একটি বালিশের দাম ধরা হয়েছে ৫ হাজার ৯শ ৫৭ টাকা এবং তা ভবনে তুলতে খরচ ধরা হয়েছে ৭শ ৩০ টাকা। একটি বৈদ্যুতিক কেটলির দাম ৫ হাজার ৩শ ১৩ টাকা যা তুলতে খরচ দেখানো হয়েছে ২ হাজার ৯শ ৪৫ টাকা। একটি টিভির দাম ধরা হয়েছে ৮৬ হাজার ৯শ ৭০ টাকা তা ভবনে তুলতে খরচ দেখানো হয়েছে ৭ হাজার ৬শ ৩৮ টাকা, এই টিভি রাখার কেবিনেটের দাম ধরা হয়েছে ৫২ হাজার ৩শ ৭৮ টাকা। এভাবে বিভিন্ন পণ্য ও তা ভবনে তুলতে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়া হয়েছে বলে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

Leave a Reply

More News from জাতীয়

More News

Developed by: TechLoge

x