সর্ববৃহৎ উপস্থিতিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বার্মিংহামে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা অনুষ্ঠিত

পুরো যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহরে থাকা প্রবাসী মৌলভীবাজারবাসীর স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতিতে বনার্ঢ্য নানা আয়োজনে এই প্রথমবারের মতো বার্মিংহামে অনুষ্ঠিত হয়েছে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা।

১৯৫২ সালে মিডল্যান্ডসে প্রতিষ্টিত মৌলভীবাজার জেলাবাসীর ঐতিহ্যবাহী সংগঠন মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের গৌরবোজ্জ্বল ৬৭ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে গত ৯ জুন এই মিলন মেলার আয়োজন করা হয় যেখানে শুধু লন্ডন,লুটন,ম্যানচেষ্টার,ওল্ডহাম,শেফিল্ড, লিভারপুল,ষ্টোকেন্ট ট্রেন্ট,কভেন্ট্রি,কার্ডিফ,নিউক্যাসল,সোয়ানসী,পোর্টসমাউত নয় সুদূঢ় আয়ারল্যান্ড-স্কটল্যান্ড থেকেও ছুটে এসেছিলেন মৌলভীবাজার জেলার সাতটি উপজেলার প্রবাসী মৌলভীবাজারবাসীরা।

অনুষ্টান শুরু হওয়ার নির্ধারিত সময়ের পুর্বেই অনুষ্ঠানস্থল বার্মিংহামের পিকাডিলি বানকুয়েটিং হল মৌলভীবাজারবাসীর উপস্থিতিতে কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে উঠে।

পরিবার পরিজন নিয়ে আসা মৌলভীবাজারবাসীদের সরব পদচারনায় মূখরিত হয়ে উঠা বানকুয়েটিং হলটি তখন হয়ে উঠে একখন্ড মৌলভীবাজারই। মৌলভীবাজারী মিলন মেলায় অংশ নিয়ে যুক্তরাজ্যের মৌলভীবাজার প্রবাসী ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার,সলিসিটর,রাজনীতিবিদ,ব্যবসায়ী,কবি-সাহিত্যিক-সাংবাদিক,সাংস্কৃতিক কর্মী,সমাজকর্মীরা আড্ডায় মেতে উঠেন নানাভাবে।

দীর্ঘদিন পরে দেখা হওয়া পুরনো বন্ধুরা আনন্দে-উচ্ছ্বাসে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে স্মৃতি রোমন্থন করে চলে যায় এক অন্যরকম অভিভূতিতে।

মৌলভীবাজারীদের মিলন মেলায় যোগ দিতে বার্মিংহামের বাঙালী কমিউনিটির নানা রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের শীর্ষজনরাও উপস্থিত হোন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে যোগ দেন বৃটিশ শেডো মিনিষ্টার ফর ডিজিটাল লিয়াম ব্রায়ান এমপি,শেডো মিনিষ্টার ফর ফরেন এন্ড কমনওয়েলথ এফেয়ার্স খালেদ মাহমুদ এমপি ও বার্মিংহামের বাংলাদেশী সহকারী হাইকমিশনার নাজমুল হকসহ অন্যান্যরা।

আসন সংকুলান না হওয়ায় তাৎক্ষনিকভাবে প্রায় দুই শত আসন বসানো হলেও তারপরও অনেকেই আসন না পেয়ে দাড়িঁয়ে থেকে উপভোগ করেন মৌলভীবাজারী মিলন মেলার যতো আয়োজন। বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে শুরু হয় মৌলভীবাজারী প্রবাসীদের বহু আকাংখিত মিলন মেলা। চ্যানেল এসের রিয়াদ আহাদ ও বার্মিংহাম কুইন এলিজাবেথ হাসপাতালের ডাক্তার মেহনাজ মুনার প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মৌলভীবাজারী মিলন মেলা শুরু হয় ধর্ম সম্পাদক ফরিদ আহমেদের পবিত্র কোরাণ তেলাওয়াতের মাধ্যমে।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল বাবলু আর সভাপতির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি হাবিবুর রহমান। তারা মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের গৌরবোজ্জ্বল ৬৭ বছর পূর্তি নিয়ে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা আয়োজনের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করেন এবং উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এসময় মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের কার্যকরী কমিটির সকল সদস্যদের মঞ্চে এনে পরিচয় করিয়ে দেওয়া ছাড়াও মৌলভীবাজারী মিলন মেলা উপলক্ষ্যে করা একটি সংকলনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

অনুষ্টানে মূলধারার রাজনীতি করে মৌলভীবাজারীদের আলোকিত মুখ হিসেবে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন কাউন্সিল থেকে নির্বাচিত হওয়া ১৪ জন কাউন্সিলরকে মঞ্চে এনে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

মরোণত্তর সম্মাননা প্রদান করা হয় মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের প্রতিষ্টাকালীন প্রয়াতঃ সদস্যদের যা গ্রহণ করেন বিভিন্ন শহরে বসবাস করা তাদের পরিবারের সদস্যরা। এছাড়া সংগঠনের সাবেক বয়োঃবৃদ্ধ সদস্যদেরও মঞ্চে এনে সম্মাননা এওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

জীবনের শেষ লগ্নে আসা সেসব বয়োঃবৃদ্ধরা তাদেরকে এখনো মনে রেখে মঞ্চে এনে সম্মাননা প্রদান করায় তাদের আবেগঘন অনূভুতি প্রকাশ করলে এক অন্যরকম পরিবেশের সৃষ্টি হয়। বয়োঃবৃদ্ধদের অনেকে হুইল চেয়ার এবং পরিবারের সদস্যদের সহযোগিতায় মঞ্চে আসলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এসময় বক্তব্য রাখেন বিশ্ব বিখ্যাত ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডঃ হাশেম ইউ আহমেদ যাকে যুক্তরাজ্য সরকার ক্যান্সার নিয়ে গবেষনা করার জন্য কয়েক মিলয়ন পাউন্ড বরাদ্দ করেছে।
দল-মত যাই-ই থাকুক মৌলভীবাজারী হিসেবে এক প্লাটফরমে আসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে মৌলভীবাজারী মিলন মেলায় মঞ্চে এসে একই স্থানে দাড়িঁয়ে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামিলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব জালাল উদ্দিন ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী,বিএনপির কেন্দ্রীয় আর্ন্তজাতিক সম্পাদক মুহিদুর রহমান ও যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ-সভাপতি লুৎফুর রহমান এবং গ্রেটার সিলেট ডেভেলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইউকের সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম মাহবুব। বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন ইউকের সাধারণ সম্পাদক অলি খান,বিশ্ববিখ্যাত শেলিব্রেটি শেফ টমি মিয়া ওবিই,শেলিব্রেটি শেফ টিপু রহমান ছাড়াও অন্যান্য সুধীজনদের মধ্যে একে একে বক্তব্য রাখেন দৈনিক ইত্তেফাকের মৌলভীবাজার জেলার সাবেক প্রতিনিধি প্রবীণ সাংবাদিক ও মুক্তকথার সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা হারুনুর রশীদ,বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শক্তিশালী কবি শামিম আজাদ,সাপ্তাহিক জনমত সম্পাদক বিশিষ্ট লেখক নবাব উদ্দিন,সিনিয়র সাংবাদিক কে এম আবু তাহের চৌধুরী,সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইছির মাহমুদ,বাংলা কাগজের চেয়ারম্যান আজাদ আবুল কালাম,সাপ্তাহিক মৌমাছির কন্ঠের সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক মকিস মনসুর,বাংলা পোষ্টের হেড অফ প্রোডাকশন সালেহ আহামেদ,কবি আতউর রহমান মিলাদ,চ্যানেল এসের সিনিয়র প্রযোজক আহাদ আহমেদ,এলবি টুয়েন্টি ফোর টিভির আতাউর রহমান শাহীন,চ্যানেল এসের স্কীল ফর ওয়ার্কের উপস্থাপক জামাল আহমেদ,বেতার বাংলার মিলন মোস্তফা ও নুরুল ইসলাম ওকিব,নর্থ ইংল্যান্ড বাংলাদেশী জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের প্রতিষ্টাতা সভাপতি সৈয়দ সাদেক আহমেদ,এটিএন বাংলা ইউকের কভেন্ট্রি প্রতিনিধি কবি রায়হান তালুকদার,এনটিভির প্রতিনিধি আব্দুল হান্নান,টিভি ওয়ানের আমিরুল ইসলাম বেলাল,বাংলা টিভির প্রতিনিধি এবাদুর রহমান খালেদ প্রমূখ। এছাড়াও বিভিন্ন শহর থেকে আগত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লেষ্টারের মতিউর রহমান চৌধুরী,ফজলুর রহমান,টিপু রহমান,পোর্টসমাউথের মসুদ আহমেদ,স্টোকেন ট্রেন্টের ইকবাল চৌধুরী,সোয়ানসীর আবু সালেহ,আব্দুল মতলিব,নর্থ ইষ্ট মৌলভীবাজার এসোসিয়শনের আনোয়ার মিয়া,নিউপোর্টের শাহ শাফি ক্বাদির,কার্ডিফের হারুনুর রশীদ,আতিকুর রহমান,মুহিবুর রহমান,ওয়াহিদ বাবুল,মুন্না,ম্যানচেষ্টারের বুরহান আহমেদ,লন্ডনের তাজ উদ্দিন,মিসবাহ কামাল,এম এ সালাম,আহবাব হোসেন খান বাপ্পি,রোমান আহমেদ,নজরুল খান, সেলিম,আয়ারল্যান্ডের আহাদ চৌধুরী,স্কটল্যান্ডর নজরুল ইসলাম প্রমূখসহ অন্যান্যরা।
অনুষ্ঠানের বিশেষত্ব ছিলো যারাই বক্তা ছিলেন তারা সকলেই ছিলেন মৌলভীবাজারী।

এমনকি এটিএন বাংলা ইউকের জয়নাল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টানেও ছিলো মৌলভীবাজারী শিল্পিদের ছড়াছড়ি। যন্ত্রসঙ্গীতে মৌলভীবাজারের পাপ্পু আর সঙ্গীতে শিবলু রহমান,স¤্রাট,ময়না মিয়া সৈয়দ সুহেল প্রমূখদের পাশাপাশি বার্মিংহামের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পি শেবুল ও লন্ডনের শতাব্দি কর সঙ্গীত এবং কভেন্ট্রির শিশু শিল্পি ফাতিহা,নাবিহা ও সামিহা পরিবেশন করেন। সবশেষে মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের কার্যকরী কমিটির সদস্যদের নিয়ে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা উপলক্ষ্যে তৈরী বিশাল কেক কাটার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘঠে। উল্লেখ্য প্রায় বারোশত অতিথির উপস্থিতিতে এই প্রথমবারের মতো অনুষ্টিত হওয়া মৌলভীবাজারী এই মিলন মেলায় বার্মিংহামের কোনো অনুষ্ঠানে বাঙালী কমিউনিটির অন্যতম বৃহৎ জনসমাগম হয় যা অনেকটা সকলেরই দৃষ্টি আকর্ষন করে।

Leave a Reply

More News from কমিউনিটি

More News

Developed by: TechLoge

x