গোলাপগঞ্জে অভিনব কায়দায় ছিনতাই অতঃপর….

Posted on by

সিলেট অফিস :: সিলেটের গোলাপগঞ্জে পীরের ছেলে পরিচয়ে অভিনব কায়দায় টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকারসহ নায়েব আলীকে (৪২) আটক করেছে পুলিশ। তবে টাকা নিয়ে সটকে পড়েছেন আরও দুজন।

আজ রোববার দুপুর ১২টার দিকে সিলেটের গোলাপগঞ্জ নূর ম্যানশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোলাপগঞ্জের ফুলবাড়ী গাজীপুর গ্রামের আবদুল মতিনের স্ত্রী মায়া বেগম স্থানীয় একটি ব্যাংক থেকে টাকা উঠিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য সিএনজিচালিত অটোরিকশা দেখছিলেন। এ সময় পেছন থেকে তিন যুবক ‘খালা’ বলে সম্বোধন করেন। তিনজনের মধ্যে এক যুবক অন্যজনকে দেখিয়ে বলেন, ‘তিনি পীর সাহেবের ছেলে। আপনার টাকা ছুঁয়ে দিলে বরকত হবে।’ এ কথা শুনে মায়া বেগম ব্যাংক থেকে ওঠানো ১ লাখ ১৪ হাজার টাকা রাখা ভ্যানিটি ব্যাগের চেইন খুলে অজ্ঞাত যুবকের দিকে এগিয়ে দেন। এ সময় ওই যুবকেরা ব্যাগ থেকে টাকা নিয়ে একটি প্রাইভেটকারে করে পালিয়ে যান। এতে কিছু সময়ের জন্য হতভম্ব হয়ে যান মায়া বেগম। পরে ছিনতাইয়ের বিষয়টি তিনি চিৎকার দিয়ে আশপাশের মানুষজনকে অবহিত করেন।

মোবাইলে আশপাশের এলাকার লোকজনকে প্রাইভেটকারটি আটক করতে খবর পাঠানো হয়। খবর পেয়ে আশপাশের এলাকার মানুষ সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের ফুলবাড়ী ইউনিয়ন কার্যালয়ের সামনের সড়কে কয়েকটি ডালপালা দিয়ে পথরোধ করে রাখেন। এ সময় প্রাইভেটকারটি ব্যারিকেড ভেঙে পালিয়ে যায়। পরে গোলাপগঞ্জের হেতিমগঞ্জ বাজারের পশ্চিমে ফের পথ রোধ করে প্রাইভেট কারটি আটক করেন স্থানীয় লোকজন। তখন প্রাইভেট কারে থাকা দুজন পালিয়ে যান। এ সময় ছিনতাইকারীদের ব্যবহৃত প্রাইভেট কারসহ চালক নায়েব আলীকে আটক করে স্থানীয় লোকজন। তবে ছিনতাই করা টাকা উদ্ধার করা যায়নি। আটকের পর নায়েব আলীকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, অভিনব কায়দায় ছিনতাইয়ের ঘটায় প্রাইভেট কারসহ একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে ছিনতাইয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও দুজন পালিয়ে গেছেন। তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x