কমিউনিটি

সাংবাদিক-কলামিস্ট জুয়েল সাদাতের সাথে লন্ডনের বাংলা মিডিয়ার সাংবাদিকদের আড্ডা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

আমেরিকায় বসবাসকারী, প্রবাসের নিউজ সম্পাদক ও প্রথম আলোর উত্তর-আমেরিকার বিশেষ প্রতিনিধি জুয়েল সাদাতের সাথে লন্ডনের বাংলা মিডিয়ার সাংবাদিক বন্ধুদের এক অন্তরঙ্গ আড্ডা ও মতবিনিময়ের অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৫ আগস্ট, সোমবার সন্ধ্যায় হোয়াইটচ্যাপেলের ফিস্ট রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত আড্ডা ও মতবিনিময়ে লন্ডনের প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত জুয়েল সাদাতের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা ছাড়াও সিনিয়র সাংবাদিক ও লেখকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় হিসেবে প্রথমে আনুষ্ঠানিক আকারে
শুরু হলেও পুরো সময় কাটে অন্তরঙ্গ আড্ডায়। সন্ধ্যায় শুরু হওয়া এ আড্ডা বক্তৃতা স্মৃতিচারণ, কবিতা পাঠ, গান ও কৌতুক পরিবেশনের মধ্যদিয়ে শেষ হয় মধ্যরাতে।

জুয়েল সাদাত অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে তাঁর সাংবাদিকতার সূচনাকালে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও মিডিা ব্যক্তিত্বের সাথে কাজ করার স্মৃতিচারণ করেন। বিশেষ করে সিলেট ও লন্ডন থেকে প্রকাশিত গ্রামীণ জনপদের মুখপত্র খ্যাত ভিলেজ ডাইজেস্টের সাথে স¤পৃক্ততা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন। জুয়েল সাদাত আমেরিকার

বাংলা মিডিয়ার কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, বৃটেনের মতো সেখানে বাংলা মিডিয়া এখনও কোনো ধরনের টানাপোড়েন বা প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়েনি। তবে বৃটেনের বাংলা মিডিয়ার ঐক্যবদ্ধ ও ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সহাবস্থানের প্রশংসা করে বলেন, একটি অন্তরঙ্গ আড্ডায় এখানকার পুরনো বন্ধুদের সাথে মিলিত হতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত এবং এই সন্ধ্যা আমাদের জীবনের স্মরণীয় একটি অধ্যায় হয়ে থাকবে।

লন্ডনবাংলা প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি ও চ্যানেল এস এর চীফ রিপোর্টার মুহাম্মদ জুবায়েরের সঞ্চালনায় এবং লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মহিব চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ঘনিষ্ট বন্ধুদের স্মৃতি চারন ছাড়াও সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের আড্ডার মধ্যমনি জুয়েল সাদাতকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি লন্ডনের বাংলা মিডিয়ার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক হিসেবে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।মতবিনিময় পর্বে সিলেট থেকে সাংবাদিকতা জীবনের সূচনায় জুয়েল সাদাতের সাথে পরিচয় ও ঘনিষ্ঠতার স্মৃতিচারণ করেন সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ, সাপ্তাহিক সুরমার বার্তা সম্পাদক কাইয়ূম আবদুল্লাহ, ব্রিটবাংলার নির্বাহী স¤পাদক আহাদ চৌধুরী বাবু, ইউকে বিডি টাইমসের স¤পাদক আব্দুল কাইয়ূম।

এছাড়া লন্ডনের বাংলা মিডিয়ার কার্যক্রম তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম বাসন, সিনিয়র সাংবাদিক শামসুল আলম লিটন, সাপ্তাহিক সুরমার সাবেক সম্পাদক কবি আহমদ ময়েজ, লন্ডন লন্ডনবাংলা প্রেসক্লাবের ট্রেজারার ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের ইউরোপ ব্যুরো চীফ আ স ম মাসুম এবং লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মতিউর রহমান চৌধুরী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল এসের হেড অব নিউজ কামাল মেহেদি, সাপ্তাহিক জনমতের নির্বাহী স¤পাদক গল্পকার সাঈম চৌধুরী, সাংবাদিক আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল, চ্যানেল এসের সিনিয়র রিপোর্টার ইব্রাহীম খলিল,সানরাইজ টুডের সম্পাদক এনাম চৌধুরী, ৫২ বাংলাটিভির সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম অভি ও রিপোর্টার আব্বাস উজ-জামান, ইউকে বিডি টাইমসের নির্বাহী স¤পাদক আমিমুল আহসান তানিম,এলবিটিভির সিনিয়র রিপোর্টার আলাউর রহমান শাহীন, এনটিভির মাসুদ আহমেদ, সাংবাদিক সাজু আহমেদ, আনোয়ার শাজাহান ও বেবুল আহমদ এবং কমিউনিটি নেতা সুফি মিয়া প্রমুখ।

নৈশভোজ পরবর্তী আড্ডায় যোগ দেন লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাপ্তাহিক পত্রিকা সম্পাদক এমদাদুল হক চৌধুরী এবং সাবেক সভাপতি ও পত্রিকার প্রধান সম্পাদক যথাক্রমে

মোহাম্মদ বেলাল আহমদ। এ পর্বে জুয়েল সাদাত তাঁর একটি কবিতার রচনাকালের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে তা পড়ে শোনান। এছাড়াও তাঁর কাব্যগ্রন্থ থেকে একটি কবিতা আবৃত্তি করেন আমিমুল আহসান তানিম। এছাড়াও প্রবাস বিষয়ক স্বরচিত গান গেয়ে শোনান কবি আহমদ ময়েজ এবং কৌতুক পরিবেশন করেন দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ।

উল্লখ্য, সাংবাদিক-কলামিস্ট ও কবি জুয়েল সাদাত লেখালেখি ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও চ্যারিটি কর্মকান্ডে স্বক্রিয়। প্রায় ৩ সপ্তাহের বৃটেন ও ফ্রান্স সফরকালীন সময়ে তিনি বাংলা মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় ছাড়াও কয়েকটি সামাজিক ও মানবাধিকার বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ সভা-সমাবেশে মিলিত হন। ৬ জুলাই, মঙ্গলবার তিনি তাঁর বাসস্থান আমেরিকার ফ্লোরিডায় ফিরে যান।

Related Articles

Back to top button