অন‌্যান্য

৫ বছরেই ৭০ অস্ত্রোপচার, কী রোগ শাহাদের?

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সৌদি আরবের শাহাদ নামের ৫ বছর বয়সী এক বালিকা। গত তিন বছরে তার দেহে ৭০ বার অপারেশন করা হয়েছে। কিন্তু তার অবস্থার কোনো উন্নতি হয় নি। এমন দাবি করেছেন তার পিতা হোসেন আল খিদাইশ। তিনি বিদেশে নিয়ে মেয়ের যথাযথ চিকিৎসায় সহায়তা চেয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সৌদি গেজেট। শাহাদের পিতা আল খিদাইশ বলেছেন, শাহাদের বয়স যখন দুই বছর তখন সে একটি উত্তপ্ত ধাতবখ- গিলে ফেলে। এতে তার অন্ননালী ও পাকস্থলির মারাত্মক ক্ষতি হয়। তবে শাহাদ কি ধাতবখ- গিলেছে সে সম্পর্কে তিনি নির্দিষ্ট করে কিছু বলেন নি। তবে এটা বলেছেন, ওই ঘটনার পর শাহাদ আর স্বাভাবিক হয় নি। সে কোনো কিছুই গিলতে পারে না। খেতে পারে না কিছু। এমনকি পানি পর্যন্ত পান করতে পারে না। তাকে নাক দিয়ে একটি পাইপের মাধ্যমে খাবার খাওয়ানো হয়। আল খিদাইশ আরো বলেছেন, এ ঘটনার পর শাহাদকে প্রথমে নেয়া হয়েছিল সৌদি আরবের আল খোবারে অবস্থিত সা’দ হাসপাতালে। সেখানে তাকে দু’সপ্তাহ রাখা হয়। কৃত্রিম ব্যবস্থায় সেখানে শ্বাস-প্রশ্বাস চলছিল শাহাদের। পরে তাকে একটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয় ওই একই শহরে। তারপর শাহাদকে নেয়া হয় রিয়াদে বাদশা ফাহদ মেডিকেল সিটিতে। এখানে শাহাদের অন্ননালী ও পাকস্থলি বড় করার জন্য প্রতি দু’সপ্তাহে একবার এন্ডোস্কপিক অপারেশন করা হয়। এ সময় তার পাকস্থলিতে একটি খাদ্য গ্রহণের পাইপ স্থাপন করা হয়। কিন্তু কোনো উন্নতি হয় নি। তাকে এভাবেই কাটাতে হয়েছে আড়াই বছরের মতো। আল খিদাইশ বলেছেন, এরপর শাহাদের অবস্থার আরো অবনতি হয়। এন্ডোস্কপিক অপারেশন করে তার অন্ননালী বিস্তৃতকরণের সময় তা ফুটো হয়ে যায়। শুধু বাদশা ফাহদ মেডিকেল সিটিতেই শাহাদের ওপর প্রায় ৫০ বার এ অপারেশন করা হয়। সেখান থেকে শাহাদকে স্থানান্তর করা হয় রিয়াদে বাদশা খালেদ ইউনিভার্সিটি হাসপাতালে। সেখানেও তার খাদ্যনালী ও পাকস্থলি বিস্তৃত করতে বেশ কিছু অপারেশন করানো হয়। কিন্তু এতেও কোনো সুফল আসে নি। উল্টো শাহাদের অবস্থার অবনতি হচ্ছে দিনকে দিন। তাই তিনি সরকারের কাছে সহায়তার আবেদন করেছেন, যেন তার মেয়েকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা করাতে পারেন।

Related Articles

Back to top button