বাংলাদেশ

হঠাৎ হল ছাড়ার নির্দেশে বিপাকে জাবি শিক্ষার্থীরা

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে আন্দোলনের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। এ ছাড়া আজ মঙ্গলবার বিকের ৪টার মধ্যে হল ছাড়ারও নির্দেশনা দেওয়া হয়। কিন্তু এতো অল্প সময়ের মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এদিকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের ঘোষণার পর বাধ্য হয়ে হল ছাড়তে শুরু করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। যদিও কিছু শিক্ষার্থী হল ছাড়লেও অনেকেই রয়েছেন সিদ্ধান্তহীনতার মধ্যে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শিক্ষার্থী বলেন, একজন উপাচার্যের জন্য পুরো বিশ্ববিদ্যালয়কে ভুক্তভোগী হতে হচ্ছে। এ ধরনের স্বৈরতান্ত্রিক আচরণ কোনো উপাচার্যের কাছ থেকে প্রত্যাশা করা যায় না।

এদিকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণাকে কেন্দ্রে করে দুই পক্ষ আবারও জড়ো হচ্ছেন, বিক্ষোভ করছেন। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ে যেকোনো সময়ে বড় ধরনের হামলা ও সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এই ঘোষণার পরপরই ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীনগর’ ব্যানারে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আবারও বিক্ষোভ শুরু করে। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল ও ক্যাম্পাস পদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে তারা বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

এদিকে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও মিছিল করছে। তারা বিভিন্ন হল থেকে ছাত্রছাত্রীরা মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে জড়ো হচ্ছেন।

এর আগে ভিসির বাসভবন ঘেরাও করে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সোমবার (৪ নভেম্বর) থেকে তারা ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেয়। ভিসির পক্ষের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও অবস্থান নেন।

Related Articles

Back to top button