খেলাধুলা

মেসির পাশে লেভানডভস্কি, বায়ার্নের বিশাল জয়

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসের মাত্র দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে এক ম্যাচে দুইবার চার গোলের করার কীর্তি গড়েছেন রবার্ট লেভানডভস্কি। প্রথম জন বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি। গতকাল রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ম্যাচে রেড স্টার বেলগ্রেডের বিপক্ষে ৪ গোল করেন পোল্যান্ডের এই তারকা। তবে ম্যাচে লেভানডভস্কি বল জালে জড়িয়েছেন মোট পাঁচবার। এর ভেতর প্রথমবার ভিএআর সেটা বাতিল করে। ২০১৩ সালে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে প্রথমবার এক ম্যাচে চার গোল করেন লেভানডভস্কি। সেটা করেছিলেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে। এই পোলিশ তারকা এই ম্যাচ দিয়ে আরো কিছু রেকর্ড নিজের করে নেন।

এই ফুটবলারের রাতে সার্বিয়ান ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৬-০ গোল ব্যবধানে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ।

৬ বছর আগে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে প্রথমবার ৪ গোল পাওয়া লেভানডভস্কির গতকাল রাতে একই কীর্তি গড়েন সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে। মাত্র ১৪ মিনিটে ৩১ সেকেন্ডের ব্যবধানে। এতো দ্রুত চার গোল করার রেকর্ডে লেভানডভস্কির পাশে নেই অন্য কেউ। এতে তার চ্যাম্পিয়নস লীগ গোল দাঁড়িয়েছে ৪৬টি। তিনি হয়ে গেছেন বায়ার্ন মিউনিখের ইতিহাসে চ্যাম্পিয়নস লীগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। ডর্টমুন্ডের পক্ষেও তিনি এই রেকর্ডটি করেন। এই নিয়ে ৫ ম্যাচে লেভানডভস্কি এবার ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় গোল করলেন ১০টি। বুন্দেসলিগায় এরই মধ্যে ১৬ গোল হয়েছে তার। পোকালেও গোল করেছেন একটি। সব মিলিয়ে তার গোলের সংখ্যা ২৭। আর ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে সবমিলিয়ে ২১ ম্যাচে গোলের সংখ্যা ৩১। এ বছরের হিসাবে সেটা ৫১ ম্যাচে ৫১ গোল।

প্রতিপক্ষের মাঠে বায়ার্নের গোল বন্যার শুরু চতুর্দশ মিনিটে। জার্মান মিডফিল্ডার লেয়ন গোরেটস্কা বায়ার্নকে এগিয়ে দেন। প্রথমার্ধের আগে লেভানডভস্কি বেলগ্রেডের জালে বল জড়ান। তবে ভিএআরে গোলটি বাতিল হয়। লক্ষ্যে মোট ১৬টি শট নেওয়া বায়ার্ন বাকি পাঁচ গোল করে দ্বিতীয়ার্ধে। ৫৩তম মিনিটে স্পট কিকে স্কোরশিটে নাম লেখান লেভানডভস্কি। ৬০ ও ৬৪তম মিনিটে জালে বল পাঠিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন তিনি। তিন মিনিট পর নিজের চতুর্থ ও দলের পঞ্চম গোলটি করেন পোলিশ এই স্ট্রাইকার। ৮৯তম মিনিটে রেড স্টারের জালে ষষ্ঠবারের মতো গোল করেন ফরাসি মিডফিল্ডার তোলিসো। ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতায় এই নিয়ে রেকর্ড ২০ বার ম্যাচে পাঁচ বা তার বেশি গোল করল জার্মানির ক্লাবটি।

Related Articles

Back to top button