বাংলাদেশ

১৩টি শতবর্ষী কলেজকে ‘সেন্টার অব এক্সিলেন্স’ করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, দেশের ১৩টি শতবর্ষী কলেজকে ‘সেন্টার অব এক্সিলেন্স’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে। দেশের ঐতিহ্যবাহী এই কলেজগুলোর উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুরূপ ভূমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে। সেসব সুযোগের সদ্ব্যব্যবহার করে শিক্ষার মানোন্নয়নের বিষয়টি সরকারের বিবেচনাধীন রয়েছে।

তিনি বলেন, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতির অভিযোগের প্রমাণ পেলে সর্বত্রই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোথাও নিয়ম শৃঙ্খলার অবনতি ঘটলে সেগুলোর বিরুদ্ধে শিক্ষা মন্ত্রাণালয় অবশ্যই ব্যবস্থা নেবে।

ডা. দীপু মনি আরও বলেন, সকলের যে দায়িত্ব রয়েছে, সেই দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট থাকবেন। অবকাঠামো ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের মাধ্যমে সবকিছুর সমন্বয়ে মানসম্মত শিক্ষায় পৌঁছাতে চাই আমরা ।

রবিবার রাজশাহী কলেজ অডিটোরিয়ামে দেশের ১৩টি শতবর্ষী সরকারি কলেজসমূহের শিক্ষার উৎকর্ষ সাধন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইন।

বক্তারা বলেন, দেশসেরা রাজশাহী কলেজ শতবর্ষী ১৩ কলেজের একটি। অন্য ১২টি কলেজ হলো, চট্টগ্রাম কলেজ, চট্টগ্রামের হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ, নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ, বরিশালের ব্রজমোহন কলেজ, সিলেটের মুরারিচাঁদ কলেজ, পাবনার এডওয়ার্ড কলেজ, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ, খুলনার ব্রজলাল কলেজ, ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ, রংপুরের কারমাইকেল কলেজ, বাগেরহাটের প্রফুল্লচন্দ্র কলেজ এবং ফরিদপুরের রাজেন্দ্র কলেজ। কর্মশালায় শতবর্ষী কলেজগুলোর অধ্যক্ষরা অংশ নেন। কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু, প্রফেসর ড. মশিউর রহমান প্রমুখ।

Related Articles

Back to top button