বাংলাদেশ

ডেসটিনির এমডি রফিকুল আমিনকে ৩ বছরের কারাদণ্ড

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: জ্ঞাত আয়ের বাইরে ১৮ কোটি ২ লাখ ২৯ হাজার টাকার হিসেব সম্পদের তথ্য বিবরণীতে না দেওয়ায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় ডেসটিনি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রফিকুল আমিনকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। সেই সঙ্গে তাকে ৫০ লাখ টাকার অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৮ এর বিচারক শামীম আহাম্মদ এ রায় ঘোষণা করেন।

জানা যায়, ২০১২ সালের ৩১ জুলাই রফিকুল আমিন ও মোহাম্মদ হোসেনসহ ডেসটিনি গ্রুপের ২২ জনের বিরুদ্ধে রাজধানীর কলাবাগান থানায় দু’টি মামলা করে দুদক। ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ (এমএলএম) ও ট্রি-প্ল্যানটেশন প্রকল্পের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থের মধ্যে ৩ হাজার ২৮৫ কোটি ২৫ লাখ ৮৮ হাজার ৫২৪ টাকা আত্মসাৎ করে পাচারের অভিযোগে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে মামলা দু’টি করা হয়। একই বছরের গত ১১ অক্টোবর ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন। বর্তমানে এ মামলায় দু’জনই কারাগারে রয়েছেন।

২০১৬ সালের ১৬ জুন কারাগারে থাকাকালীন সময়ে ওই দুই মামলায় রফিকুল আমিনের জ্ঞাত আয় বহির্ভূত ১৮ কোটি ২ লাখ ২৯ হাজার ৩২৩ টাকার সম্পদের হিসাব চেয়ে নোটিশ দেয় দুদক। সাত দিনের মধ্যে তাকে তথ্য বিবরণী জমা দিতে বলা হয়। তিনি সম্পদের তথ্য বিবরণী দাখিলের জন্য সময়ের আবেদন করলে তাকে আরও সাত দিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়। তারপরও আদালতে বিবরণী দাখিল না করায় ২০১৬ সালের ৮ সেপ্টেম্বর রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক।

২০১৭ সালের ৬ জুন এই মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করে দুদক। পরে ২০১৮ সালের ১২ মার্চ চার্জগঠন করে মামলার বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়।

Related Articles

Back to top button