যুক্তরাজ্য

স্মার্ট ফোন গিলে খাচ্ছে ব্রিটিশ শিশুদের

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : ২০১৯ সালে ইউকেতে ১০ বছর বয়সী প্রায় ৫০ শতাংশ শিশু একটি করে স্মার্ট ফোনের মালিক ছিল। এছাড়া ৩ থেকে ৪ বছর বয়েসি ২৪ শতাংশ শিশু একটি করে টেবলেটের মালিক ছিল এবং ১৫ শতাংশই তা নিয়ে বিছানায় ঘুমাতে যেত। ইউকের মিডিয়া নজরদারি প্রতিষ্ঠান অফকম এক রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশ করেছে। প্রায় তিন হাজার দু’শ শিশু এবং অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলে এই রিপোর্ট তৈরি করেছে অফকম। বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস ব্যবহারের ক্ষেত্রে শিশুদের অভ্যাসের ধরন খুঁজে বের করার জন্য অফকমের বার্ষিক রিপোর্টে তা প্রকাশ করা হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইউকেতে ৫ থেকে ১৫ বছর বয়েসি ৪৮ শতাংশ মেয়ে সপ্তাহে প্রায় সাড়ে সাত ঘন্টা অনলাইনে গেইম খেলে। আর একই বয়সের প্রায় ৭১ শতাংশ ছেলে সপ্তাহ ১৪ দশমিক ৫ ঘন্টা অনলাইন গেইমে সময় কাটিয়েছে। তুলনামূলক বয়স্ক শিশুদের কাছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের স্ন্যাপচ্যাট এবং ফেইসবুক সব চাইতে বেশি প্রিয়। তবে ৬২ শতাংশ কিশোর-কিশোরীর ওয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে বেশি। ২০১৮ সালে ওয়াটসঅ্যাপ ব্যবহাকারী শিশু কিশোরের সংখ্যা ছিল ৪৮ শতাংশ। রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, বিদায়ী বছরে ৫ থেকে ১৫ বছর বয়সী ৯৯ শতাংশ শিশুর টিভি সেট ব্যবহার করত। আর ২৭ শতাংশ শিশু স্মার্ট স্পীকার এবং ২২ শতাংশ শিশু রেডিও শুনত।

এই রিপোর্ট তৈরির সময় স্বাক্ষাতকারে ৪৫ শতাংশ অভিভাবক জানিয়েছেন, তারা মনে করতেন শিশুদের  জন্য ইন্টারনেট ব্যবহারের কোন ঝুঁকি নেই। তবে ইন্টারনেটে শিশুরা যেসব বিয়ষ দেখে থাকে এর মধ্যে এমন কিছু বৃদ্ধি পাচ্ছিল যা  শিশুদের মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে বলে অভিভাবকদের চিন্তার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

এদিকে এই রিপোর্ট প্রকাশের পর শিশুদের নিয়ে কাজ করা চ্যারিটি সংস্থা এনএসপিসিসি সামাজিক মাধ্যমে শিশুদের মানুসিক ক্ষতিকর বিষয়গুলো শক্তভাবে প্রতিরোধ করতে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অফকমের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button