অধ্যাপক ড. ভীস্মদেব চৌধুরীর সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই ইন দ্যা ইউ. কে‘র মতবিনিময়

গত ১৩ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার সন্ধ্যায়, অধ্যাপক ড. ভীস্মদেব চৌধুরী, চেয়ারম্যান, বাংলাবিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর সম্মানে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই ইন দ্যা ইউ. কে এর পক্ষ থেকে স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে মত বিনিময় ও সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য, অধ্যাপক ড. চৌধুরী বিশিষ্ট সাংবাদিক সাহিত্যিক হামিদ মোহাম্মদের মাধ্যমে লন্ডনে বই মেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগ দিতে আসেন। মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অধ্যাপক চৌধুরীর সাথে তার কিছু এলামনাই সহপাঠী ও ছাত্র ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির সাথে দেখা করে মতবিনিময়ে আরো ছিলেন এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. অক্ষয় পাল ও মেলবোর্ন আর এম আই টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. ফিরোজ আলম। সব মিলিয়ে প্রায় অর্ধ শতাধিক ব্যক্তিবর্গের উপস্হিতিতে মতবিনিময় অনুষ্ঠান জমজমাট হয়ে উঠে।

প্রেসিডেন্ট ব্যারিস্টার আনিস রহমান ওবিই’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রকীব এফসিএ এর পরিচালনায় একটি স্বত:স্ফুর্ত আলোচনা এবং মত বিনিময় অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়।

মতবিনিময় অনুষ্ঠানে যারা বক্তৃতা ও আলাপ আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন তারা হলেন: প্রেসিডেন্ট আনিস রহমান ও বি ই, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রকিব এফ সি এ, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট দেওয়ান গউস সুলতান, ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসমাইল হোসেইন ও সিরাজুল বাসিত চৌধুরী (কামরান), যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী হাফিজুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ হামিদুল হক, দপ্তর সম্পাদক কাজী আশিকুর রহমান, সংগঠন সম্পাদক প্রশান্ত দত্ত পুরকায়স্থ, প্রেস ও প্রচার সম্পাদক নীলুফা ইয়াসমিন হাসান, শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক মেহেরুন আহম্মেদ (মালা) ও সদস্য সচিব মোহাম্মদ হাবীব রহমান, ড. মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান, মারুফ আহমদ চৌধুরী, রীপা সুলতানা রকীব, এস এম মুসতাফিজুর রহমান, সৈয়দ আনিসুজ্জামান, মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল উদ্দিন মিলন, এরিনা সিদ্দীক (সুপ্রভা) ও মো: মুজাহিদুল ইসলাম।

গোড়াতে ড. ভীষ্মদেবকে ফুলের তোড়া দিয়ে স্বাগত জানান কিছু উপস্থিত এলামনাই, সাধারন সম্পাদক ও মহিলা এলামনাইরা। প্রেসিড্ন্ট আনিস রহমানের স্বাগত সম্বর্ধনা শেষে সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রকীব বিশেষ অতিথি ড. চৌধুরীকে এলামনাইদের পক্ষ থেকে কিছু উপহার তুলে দেন। এর মধ্যে ষ্টিফেন হওকিং এর সাড়া জাগানো বই A brief history of time উল্লখযাগ্য। ড. চৌধুরীও মুহাম্মদ আব্দুর রকীবের হাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু স্মরণীকা (memorabilia) ও ম্যাগাজিন উপহার দেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement