আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন নিশ্চিত জো বাইডেনের

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: আনুষ্ঠানিকভাবে ডেমোক্রেট দল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদে স্বীকৃতি চূড়ান্ত করলেন জো বাইডেন। দেশের বর্ষীয়ান ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের আশীর্বাণীতে সিক্ত হলেন তিনি। তার ভূয়সী প্রশংসা করলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক দু’জন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ও জিমি কার্টার। তাকে অনুমোদন দিলেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের দল রিপাবলিকানের প্রভাবশালী নেতা, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী কলিন পাওয়েলও। সোমবার ডেমোক্রেট দলের কনভেনশনের উদ্বোধনী দিনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের কড়া সমালোচনা করে ব্যাপক আলোচিত হন সাবেক ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামা। তিনি ট্রাম্পকে একজন ‘রং প্রেসিডেন্ট’ বলে আখ্যায়িত করেন। তার কথার সূত্র ধরেই সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন কড়া সমালোচনা করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওভাল অফিসে বিশৃংখলা নিয়ে এসেছেন।

এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।
আগামী ৩রা নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। সেই নির্বাচনের আগে জনমত জরিপে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে পিছনে ফেলে এগিয়ে আছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ক্ষমতার মেয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন। মঙ্গলবার রাতে তিনি দলীয় মনোনয়ন পেলেন। এ রাতে ৫০টি রাজ্যের সব ডেলিগেটের ভোটে তিনি মনোনীত হন প্রার্থী। ডেলিগেটরা আগে থেকে রোলকল ভিত্তিক ভোট দিয়েছিলেন। ফলে ভার্চুয়াল কনভেনশনে আনুষ্ঠানিকতা বজায় রেখে ডেমোক্রেট দল থেকে প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী চূড়ান্ত হন জো বাইডেন। এ নিয়ে তৃতীয় বারের মতো তিনি হোয়াইট হাউজের দৌড় শুরু করলেন। এর আগে ১৯৮৮ সালে এবং পরে ২০০৮ সালে তিনি চেষ্টা করেছিলেন। ৭৭ বছর বয়সী জো বাইডেনের প্রচারণা এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে যেন এক ধ্বংসস্তূপের মধ্যে ছিল। সেখান থেকে নাটকীয়ভাবে তার উত্তরণ ঘটে। তিনি সব ফ্রন্টরানারকে পিছনে ফেলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে যান।

মঙ্গলবার রাত ছিল ডেমোক্রেট দলের কনভেনশনের দ্বিতীয় রাত। এদিনের থিম ছিল ‘লিডারশিপ ম্যাটারস’। এতে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বিল ক্লিনটন। আগে থেকে রেকর্ড করা ৫ মিনিটের বক্তব্যে তিনি বলেন, ডনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, আমরা বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছি। কিন্তু আমরাই একমাত্র শিল্পভিত্তিক অর্থনৈতিক বড় দেশ, যেখানে বেকারত্বের হার তিনগুন বেড়েছে। এমন অবস্থায় ওভাল অফিস হওয়া উচিত একটি কমান্ড সেন্টার। কিন্তু এর পরিবর্তে তা পরিণত হয়েছে এক ঝড়ের সেন্টার হিসেবে। সেখান থেকে শুধুই বিশৃংখলা সৃষ্টি করা হয়।

এর আগে সোমবার বক্তব্য রাখেন সাবেক ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামা ও সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স। তবে মঙ্গলবারের বক্তব্যে অনেকে আগ্রহভরে শুনেছেন রিপাবলিকান কলিন পাওয়েলের বক্তব্য। তিনি জো বাইডেনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বলেন, আমি ব্রোঙ্কসে জন্ম নেয়ার পর বড় হয়ে এবং ইউনিফর্ম পরে যে মূল্যবোধ শিখেছি তাই ধারণ করেন জো বাইডেন। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের চার তারকা খচিত এই জেনারেল পাওয়েল বলেন, প্রেসিডেন্ট পদে তিনি জো বাইডেনকে সমর্থন করেন। কারণ, ‘আমরা হোয়াইট হাউজে ওই মূল্যবোধ ফেরাতে চাই’। কলিন পাওয়েল সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের অধীনে দায়িত্ব পালন করেন। আগের বছরগুলোতে তিনি রিপাবলিকানদের অনেক কনভেনশনে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু জুনে তিনি বর্তমান রিপাবলিকান দল থেকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে মিথ্যাবাদী বলে আখ্যায়িত করেন এবং অনুমোদন দেন জো বাইডেনকে। তিনি ছাড়াও হেভিওয়েট আরো রিপাবলিকান অনুমোদন দিয়েছেন বাইডেনকে। এর মধ্য রয়েছেন ওহাইওর সাবেক গভর্নর জন কাসিচ, সিন্ডি ম্যাককেইন (রিপাবলিকান দলের সাবেক সিনেটর জন ম্যাককেইনের স্ত্রী)। জো বাইডেনের সঙ্গে জন ম্যাককেইনের বন্ধুত্বের বিষয়ে বক্তব্য রেখেছেন সিন্ডি ম্যাককেইন।

Advertisement