আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের অর্জন ‘শূন্য’ : পুতিন

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের অর্জন ‘শূন্য’ বলে দাবি করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তার মতে, যুদ্ধবিধ্বস্ত রাষ্ট্রটিতে মার্কিন বাহিনীর গত ২০ বছরের অভিযান ট্র্যাজেডিতে পরিণত হয়েছে। এখান থেকে ওয়াশিংটন কিছুই অর্জন করতে পারেনি। আফগান ভূখণ্ডে যুক্তরাষ্ট্রের সব প্রচেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে।রাশিয়ার ভ্লাদিভোস্তক শহরে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে পুতিন বলেছিলেন, মার্কিন সেনাবাহিনী সেখানে (আফগানিস্তানে) দীর্ঘ ২০ বছর অবস্থান করেছে। এত সময় ধরে চেষ্টা করেও তারা কিছুই অর্জন করতে পারেনি।তিনি আরও বলেন, প্রকৃতপক্ষে বাইরে থেকে সেখানে গিয়ে কোনো কিছু আরোপ করা সম্ভব নয়। এর আগে গেল সপ্তাহে পুতিন একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেন, আফগানদের নিজস্ব বিষয়ে কখনোই হস্তক্ষেপ করবে না মস্কো। কারণ তারা অতীতে আফগান-সোভিয়েত যুদ্ধ থেকে শিখেছে। আফগান ভূমিতে দীর্ঘ ১০ বছরের সেই যুদ্ধে মস্কো পরাজিত হয়। ১৯৮৯ সালে সোভিয়েত সেনাদের আফগানিস্তান থেকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

পুতিন দাবি করেন, আফগানিস্তানের অর্থনীতি পুনর্গঠনে সহায়তার জন্য রাশিয়া প্রস্তুত। আমরা আফগান সরকারের সম্পদ জব্দ না করতে পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা তালেবান নেতাদের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছি। কাবুলে অবস্থিত আমাদের দূতাবাস এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করেছে।এ দিকে অতি অল্প সময়ের মধ্যে আফগানিস্তানের নতুন সরকার ঘোষণা করা হবে বলে দাবি করেছেন সশস্ত্র সংগঠন তালেবানের শীর্ষ নেতা আনাস হাক্কানি। এমনকি নতুন সরকার গঠনের কার্যক্রম ইতোমধ্যে শেষ পর্যায়ে বলেও জানান তিনি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তালেবানের অন্যতম এ নেতা কথাগুলো বলেন।গত মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) মার্কিন সেনাবাহিনী আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই তালেবানের নতুন সরকার গঠনের খবরটি সামনে আসে। আনাস হাক্কানি আরও বলেন, সরকার গঠনে আমরা ৯০ থেকে ৯৫ শতাংশ কাজ এরই মধ্যে সম্পন্ন করে ফেলেছি। এখন কেবল চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আগামী অল্প কয়েকদিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে।

Advertisement