আবার আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘর্ষ

সোমবার রাত থেকে আবার আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানেরসংঘাত তীব্র হয়েছে। দুই পক্ষই প্রচুর গোলাগুলি চালিয়েছে। লড়াইটা হয়েছে নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চলে। এই অঞ্চলটি এখন আজারবাইজানের অধীনে হলেও, আগে তা আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা নিয়ন্ত্রণে ছিল।মঙ্গলবার সকালে আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, লড়াই এখনো চলছে। পরিস্থিতি যথেষ্ট উত্তেজক।দুই পক্ষই একে অপরের ঘাড়ে দায় চাপাচ্ছে। দুই পক্ষের দাবি, তারা আক্রান্ত হয়ে জবাব দিয়েছে।আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানিয়েছেন, রাত বারোটা পাঁচ মিনিটে আজারবাইজান প্রবল গোলাবর্ষণ শুরু করে। সেই সঙ্গে গুলিও চালায় তারা। গোরিস, সটক ওজারমুকের মতো শহর লক্ষ্য করে আক্রমণ চালায় তারা।

আজারবাইজানের বক্তব্য, আর্মেনিয়ার বাহিনী সোমবার রাতে গোলাগুলি চালাতে শুরু করে। দাসকেসান, কেলবাজার ও লাচিনে তারা ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ করে এবং গোলাগুলি চালায়।আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তাদের সেনা পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছে মাত্র। আর্মেোনিয়ার সেনা আজারবাইজানের সামরিক লক্ষ্যে আঘাত হানার চেষ্টা করেছে।আর্মেনিয়ার সেনা জানিয়েছে, তারা উপযুক্ত জবাব দিয়েছে। আর আজারবাইজান সেনার দাবি, আর্মেনিয়া মর্টার-সহ নানা ধরনের অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করেছে।দুই পক্ষই জানিয়েছে, তাদের কিছু সেনার মৃত্যু হয়েছে। তবে সেই সংখ্যাটা তারা জানায়নি।নাগর্নো-কারাবাখ এলাকায় দুই দেশ দুইবার যুদ্ধ করেছে। ৩০ বছর ধরে আর্মেনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদীরা এই জায়গাটি নিয়ন্ত্রণ করেছে। পরে আজারবাইজান প্রায় পুরো এলাকা দখল নেয়। ২০২০-তে দুই দেশের মধ্যে যে ছয় সপ্তাহের লড়াই হয়েছিল, তখনই আজারবাইজানের সেনা নাগর্নো-কারাবাখের প্রায় পুরো এলাকা দখল করে। পরে রাশিয়ারমধ্যস্থতায় তাদের চুক্তি হয়।গত সপ্তাহে আর্মেনিয়া অভিযোগ করেছিল, আজারবাইজান তাদের এক সেনাকে হত্যা করেছে। আজারবাইজানও অভিযোগ করে, গত কয়েক মাস ধরে আর্মেনিয়া তাদের উপর গুলিগোলা চালাচ্ছে।সূত্র: ডয়েচে ভেলে

Advertisement