ইংল্যান্ডে ১৬ ব্রিটিশ এশিয়ান ধর্ষকের ২২১ বছরের জেল

বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অল্পবয়সী কিশোরীদের ধর্ষণসহ যৌনহয়রানীর অভিযোগে ইয়র্কশায়ার এলাকার একটি সংঘবদ্ধ চক্রের ১৬ সদস্যের ২২১ বছরের জেল দিয়েছে লিডস ক্রাউন কোর্ট। একই অভিযোগে এই চক্রের আরো চার সদস্যকে দোষি সাব্যস্ত করা হয়েছে। পরবর্তীতে তাদের সাজার মেয়াদ ঘোষনা করবে আদালত। আদালত জানিয়েছে/ ২০০৪ সাল থেকে ২০১১ সালর ভেতরে/ ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারের হাডার্সফিল্ডে ১১ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রায় ১২ জন কিশোরীকে ধর্ষন ও হয়রানী করেছে এই চক্রটি। সংঘবদ্ধ এই চক্রের সব সদস্য এশিয়ান ব্রিটিশ। এরমধ্যে পাকিস্তানি বংশোদ্ভুতের সংখ্যা বেশি। এই চক্রের বিরুদ্ধে একই আদালতে তিন দফায় রায় দেওয়া হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার ফলে আগের দুটি রায়ের খবর সংবাদ মাধ্যমে প্রচার করা হয়নি। শুক্রবার সংবাদ প্রচারের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে আদালত। চলতি বছরের প্রথম দিকে/ মামলার প্রথম রায়ে সংঘবদ্ধ এই চক্রের নেতার যাবজ্জীবন দন্ড দেয় আদালত। দল নেতার নাম আমর সিং ধালিওয়াল। তার বয়স ৩৫ বছর। তার বিরুদ্ধে ২২টি ধর্ষনসহ বিভিন্ন ধরনের ৫৪টি অভিযোগ ছিল।

সাজা প্রাপ্তরা হল..

তিনটি শুনানিতে সাজা হয়। প্রথম শুনানিতে সাজা হয় আমর সিং ধালিওয়ালের। হলি রোড। হাডার্সফিল্ড। তাকে অন্তত ১৮ বছর জেল খাটতে হবে। ৩৪ বছর বয়সী ইরফান আহমেদের ৮ বছরের জেল। ২৯ বছর বয়সী জাহিদ হাসানের ১৮ বছর, ৩৪ বছর বয়সী মোহাম্মদ কামেরের ১৬ বছর, ৩১ বছর বয়সী মোহাম্মদ রিজওয়ান আসলামের ১৫ বছর, ৩১ বছর বয়সী আব্দুল রেহমানের ১৬ বছর, ৩৪ বছর বয়সী রাজ সিনহার ১৭ বছর এবং ৩২ বছর বয়সী নাহমান মোহাম্মেদেও ১৫ বছরের জেলদন্ড দেয় আদালত।

দ্বিতীয় শুনানিতে ২৭ বছর বয়সী মানসুর আখতারের ৮ বছর, ৩৮ বছর বয়সী ওয়াকাস মাহমুদের ১৫ বছর, ৩০ বছর বয়সী নাসারাত হোসাইনের ১৭ বছর, ৩৩ বছর বয়সী সাজিদ হোসাইনের ১৭ বছর, ৩০ বছর বয়সী মোহাম্মেদ ইরফরাজের ৬ বছর, ৩২ বছর বয়সী ফয়সাল নাদিমের ১২ বছর, ৩৩ বছর বয়সী মোহাম্মেদ আজিমের ১৮ বছর এবং ৩৮ বছর বয়সী মানজুর হাসানের ৫ বছরের জেল হয়।
মামলার তৃতীয় শুনানিতে ৫৪ বছর বয়সী নিয়াজ হাসান এবং ৩৪ বছর বয়সী মোহাম্মদ ইমরান ইব্রার, ৩৩ বছর আসিফ বাশির এবং ৩৩ বছর বয়সী মোহাম্মদ আকরামকে দোষি সাব্যস্ত করে আদালত।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement