ইতালী বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সংবাদ সন্মেলন

এমডি রিয়াজ হোসেন, ইতালী থেকে : দেশে বিএনপির সিনিয়র নেতা, সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জয়নুল আবেদীন ফারুক, যুবদলের সাবেক সভাপতি বরকত উল্লা ভুলু, আদালত কর্তৃক  জেলে প্রেরন এবং ইতালী বিএনপির সিনিয়র নেতা হাসানুজ্জামান কামরুল, রোম মহানগর বিএনপির সভাপিত হুমায়ন কবির, সিনিয়র সহ সভাপতি সিরাজ মৃধাকে সমাজে হ্যায় করতে তথাকথিত বহিস্কার উল্লেখ করে সাংবাদিক সন্মেলন করেছে ইতালী বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি। তরপিনাত্তারা ৬ নং কমুনের হলে আয়োজিত সংবাদ সন্মেলনে বক্তব্য রাখেন
কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শাহ তাইফুর রহমান ছোটন, সাধারন সম্পাদক খন্দকার নাসির উদ্দিন, সিনিয়র সহ-সভাপতি জিয়াউল হক জিয়া, সহ-সভাপতি মোঃ আবুল কালাম, নুরুল আফসার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন মোল্লা, জুয়েল আহমেদ, আবুল কালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শাজাহান ভুইয়া মিলন, দপ্তর সম্পাদক আক্তার হোসেন, প্রচার সম্পাদক নিরব খান, খান রবিন সহ আরো অনেকে। । এছাড়াও বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সন্মেলনে বক্তারা বলেন,  একটি বির্তকিত কমিটি সব সময়ই বির্তকিত কর্মকাণ্ড করে থাকে। ইতালী বিএনপির সিনিয়র নেতা হাসানুজ্জামান কামরুল, রোম মহানগর বিএনপির সভাপতি হুমায়ন কবির, সিনিয়র সহ সভাপতি সিরাজ মৃধা দলের পরিক্ষিত সৈনিক। দলের দু:সময়ে যখন তারা ঐক্যবদ্ধ  ইতালী বিএনপি গঠনের উদ্যোগ নেয় তখনই আওয়ামীলীগ ঘেষা কিছু  নেতা রোমের কয়েকজন সিনিয়র নেতৃবৃন্দকে সামাজিক ভাবে হেয় করতে বহিস্কার খেলায় মেতে উঠেছে। শাহ তাইফুর রহমান ছোটন তার বক্তব্য বলেন, একটি নির্বাচিত কমিটির বিরুদ্ধে তথাকথিত নেতাদের দোহাই দিয়ে রোমে কার্যক্রম পরিচালনায় দায়ে তাদেরকেও বহিস্কার করা হবে। আমরা কিছু বলতে চাই না আপনারা দেখুন তাদের সাথে কারা আছে আর আমাদের সাথে কারা। ইতালী যুব দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং জিয়া পরিষদের সহ সভিপতির নেতৃত্বে ইতালী বিএনপি পরিচালিত হতে পারে না। জিয়াউর রহমান, বেগম খালেদা জিয়া এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিএনপি করতে কারো অনুমোদনের প্রয়োজন আছে বলে আমরা মনে করি না। খন্দকার নাসির উদ্দিন বিএনপির আন্তজার্তিক সম্পাদক মাহিদুর রহমান, আনোয়ার এবং সায়েমের সমালোচনা করে বলেন ইতালী বিএনপির নির্বাচিত কমিটিকে তথাকথিত অব্যাহতি দিয়ে
অর্থের বিনিময়ে পরাজিত প্রার্থীদের দায়িত্ব দেওয়া ইতালীর নেতা কর্মীরা মেনে নেয়নি, মেনে নিবে না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement