ইনু-শিরীন ছেড়ে আম্বিয়া-বাদলের সঙ্গে গেলেন কেন্দ্রীয় জাসদ নেতা শামীম আহমেদ

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : ইনু-শিরীন গ্রুপ ছেড়ে আন্বিয়া-বাদলের সঙ্গে গেলেন জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা শামীম আহমেদ। এক বিবৃতিতে হাসানুল হক ইনু’র নেতৃত্বাধীন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) এর সাথে সম্পর্কচ্ছেদ করার কথা জানান প্রবাসী নেতা শামীম।

একই সাথে তিনি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, মইন উদ্দিন খান বাদল ও নাজমুল হক প্রধান এমপি’র নেতৃত্বে আস্থা প্রকাশ করে জাসদ রাজনীতি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। বিবৃতিতে তিনি বলেন, ২০১৬ সালের ১২ মার্চ কাউন্সিলে বিশৃংখলা, হাতাহাতির মধ্য দিয়ে জাসদ নেতা-কর্মীদের বড় অংশের ওয়াক আউট ও দ্বিধাবিভক্তির পরেও তিনি জাসদ (ইনু)’র সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

এক বছরের মাথায় নতুন কাউন্সিলের মাধ্যমে দল আবার একত্রিত হবে বলে আশাবাদী ছিলেন তিনি।

শামীম আহমেদ আরো বলেন, ইনু-শিরীন নেতৃত্বাধীন অংশের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে অংশ নেবার পরেও দেশে-বিদেশে সব সময় জাসদ ঐক্যের পক্ষে সক্রিয় ছিলেন। এক বছর পার হবার পরেও যখন ইনু-শিরীন অংশের একটি বিশেষ চক্রের বিভেদকামী তৎপরতা কমেনি, বরং আরো উগ্রতা লাভ করেছে, সংগঠনের প্রবীণ নেতৃত্বকে অপমান-লাঞ্ছনার শিকার হতে হচ্ছে, তখন তাঁর পক্ষে বিশেষ কোটারী পরিচালিত জাসদ (ইনু-শিরীন)এর সাথে সাংগঠনিক সম্পর্ক রাখা সমীচীন মনে করেননি বলে বিবৃতিত উল্লেখ করেন শামীম আহমেদ।

“ঐক্যের জন্য ইনু-শিরীনের কাছে আহ্বান জানানো নিষ্ফল সময়ক্ষেপন মাত্র” বলে মনে করেন শামীম। ইতোমধ্য তাঁর মত একই উপলব্ধি থেকে পাবনা ও ময়মনসিংহ জেলার জাসদ নেতা-কর্মীবৃন্দ ইনু-শিরীন অংশের সাথে সম্পর্কচেছদ করে আম্বিয়া-প্রধান নেতৃত্বাধীন জাসদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

দেশে ও বিদেশ আরো অনেক নেতা-কর্মীবৃন্দ একই ধরণের পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন বলেও জানা গেছে।

উল্লেখ্য শামীম আহমদ ২০১৬ সালের মার্চ থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত কেন্দ্রীয় দাসদের শিল্পও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়াও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এবং কেন্দ্রীয়কার্যকরী কমিটির সদস্য হিসেব দায়িত্ব পালন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement