এশিয়ানদের কুকুরের সঙ্গে তুলনা করে ফেইসবুকে জৌক : টোরি মেয়র সাসপেন্ড

বিশেষ প্রতিনিধি : এশিয়ানদেরকে কুকুরের সঙ্গে তুলনা করে ফেইসবুকে বর্ণবিদ্বেষী ও অসম্মানজনক ঠাট্টা-তামাশা করার অভিযোগে ল্যাঙ্কারশায়ারের পেন্ডলের সাবেক মেয়রকে তার দল থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।
নিজের পোষা প্রাণীর জন্য বেনিফিট চাইতে আসা একজন পুরুষকে ইতর প্রাণীর সঙ্গে তুলনা করে ফেইসবুকে বর্ণবাদী রসিকতা পৌস্ট করেন কন্সার্ভেটিভ কাউন্সিলর রৌজমেরী ক্যারল। এর ঠিক পরপরই জনসাধারণ ও সহকর্মী কাউন্সিলরদের কাছ থেকে ক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়া ও অভিযোগ আসতে থাকে। ঘটনার প্রেক্ষাপটে পেন্ডল বারা কাউন্সিলের নেতা, কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইকবাল, আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করে এই কাউন্সিলরকে বহিষ্কারের আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, কাউন্সিলর ক্যারোলের করা অত্যন্ত আপত্তিকর পোস্টিং-এর ব্যাপারে জনসাধারণের পক্ষ থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে এবং তিনি নির্বাচিত সদস্যদের জন্য নির্ধারিত আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন বিধায় তার বিরুদ্ধে একটি জরুরি তদন্তের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। ক্যারলকে তাৎক্ষনিক ভাবে দল থেকে বহিষ্কারের অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং পেন্ডেল কাউন্সিলের কনসার্ভেটিভ গ্রুপের নেতা জৌ কুনীকেও চিঠি লিখেছেন বলে জানান মোহাম্মদ ইকাবাল। কন্সার্ভেটিভ কাউন্সিলরদের এ ধরণের বর্ণবাদী মন্তব্য নতুন কোন ঘটনা নয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি। তাছাড়া তিনি আরও জানান, কমিউনিটির বিভিন্ন সম্প্রদায়ের সঙ্গে এদের সমস্যা আছে বলেও প্রতীয়মান হয়।

মে মাস পর্যন্ত পেন্ডল বারার মেয়র ছিলেন টোরি কাউন্সিলর ক্যারল। গেল সপ্তাহে তার অ্যাকাউন্টে বর্ণবাদী পৌস্টটি দেওয়ার পর এসব অভিযোগের ভিত্তিতে ক্যারলকে তার দল থেকে তদন্ত সম্পন্ন হবার আগ পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন পেন্ডল টোরি নেতা কাউন্সিলর কুনী। তিনি বলেন, কোনও ধরণের বর্ণবাদিতা সহ্য করা হবে না।

পেন্ডেল কাউন্সিলের কর্পোরেট ডাইরেক্টর ফিলিপ মোসডেল নিজে এসব অভিযোগের তদন্ত করছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, ফেইসবুকে এই ‘অনাকাঙ্ক্ষিত পৌস্ট’-কে কেন্দ্র করে একের পর এক অভিযোগ আসায় এ ব্যাপারে একটি বিবৃতি পেশ করেছে কন্সার্ভেটিভ দলের স্থানীয় শাখা।

শাখার ফেইসবুক অ্যাকাউন্টে বিবৃতিতে জানানো হয়, ক্যারলকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। নিজের ফেইসবুক পেইজে পৌস্টটি দিয়ে সৌশাল মিডিয়ায় অযথা অযৌক্তিক পৌস্ট শেয়ার করায় এমন ফল ভোগ করলেন কাউন্সিলর ক্যারল।
ল্যাঙ্কাশায়ারের পেন্ডল বারা কাউন্সিলের ইয়ারবির প্রতিনিধি কাউন্সিলর ক্যারল এখন তার দলের বাইরে স্বতন্ত্র হিসেবে তালিকাভুক্ত হলেন। এদিকে, অভিযোগগুলি আসার কারণে তার ফেসবুক একাউন্টটিও উধাও হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ক্লোভার হিল ওয়ার্ডের প্রতিনিধিত্বকারী লেইবার কাউন্সিলর ওয়েন ব্ল্যাকবার্ন ফেসবুকে তার পৌস্ট-এ জানান, “ক্যারলকে তিনি সবসময় ‘মিশুক এবং বন্ধুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও সহকর্মী’ হিসেবেই দেখেছেন। তবে ফেইসবুকে ক্যারলের বর্ণবিদ্বেষী পৌস্টটি দেখে গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমরা দেশের এমন এক বৈচিত্র্যময় অংশে বাস করছি, যেখানে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে নানা সংস্কৃতির মানুষ রয়েছেন। আমার তাই মাথায়ই আসছে না এমন একটি আক্রমণাত্মক আইটেম কাউন্সিলর ক্যারল তার পেইজে কেনইবা পৌস্ট করতে গেলেন।”

কন্সার্ভেটিভ দল দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে এ ব্যাপারে তদন্ত শেষ হবার আগ পর্যন্ত ক্যারলকে সাসপেন্ড করায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, “ফেইসবুকে আমাদের পৌস্টগুলি যেন কাউন্সিলের আচরণবিধি অনুযায়ী আপত্তিকর না হয় সেটা নিশ্চিত করা কাউন্সিলর হিসাবে আমাদের দায়িত্ব। সেজন্য কাউন্সিলের পরবর্তী পূর্ণ অধিবেশনে দায়দায়িত্বগুলি পুনর্ব্যক্ত করার উদ্দেশ্যে একটা প্রস্তাব পেশ করার কথা ভাবছি। আশা করি পুরো কাউন্সিলের সর্বসম্মত সমর্থন পাবো। ”

এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য কাউন্সিলর ক্যারোলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে বিবিসিকে তিনি জানান, বিষয়টির জন্য ক্ষমা চেয়ে একটি পোস্ট করার পরিকল্পনা করেছেন তিনি।#TS#

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement