এসিড হামলা বন্ধে কয়েকটি সুপার মার্কেটের ব্যতিক্রমি উদ্যোগ : Acid attacks: Retailers sign up to voluntary ban on acid sales

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : এসিড হামলা বন্ধে ব্যতিক্রমি উদ্যোগ নিয়েছে ইউকের বেশ কয়েকটি বৃহৎ সুপার মার্কেট। এগুলো হল যথাক্রমে বি এন্ড কিউ, উইকস, মরিসন, কো-অপারেটিভ এবং টেসকো। এসিড বিক্রির উপর সরকারী আইন পাশ না হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত অনুর্ধ্ব ১৮ বছর বয়সী ক্রেতার কাছে বিপজ্জনক এসিড বিক্রি করবে না বলে স্বেচ্ছায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওই সুপার মার্কেটগুলো।

এসিড হামলার অভিযোগে আর্থার কলিন্স নামে এক ব্যক্তির ২০ বছরের জেল হয়েছে গত বছর। ইস্ট লন্ডনের হেকনিতে একটি নাইট ক্লাবে এসিড হামলা করেছিলেন সে। এই হামলা প্রায় ২০ জন এসিড দ্বগ্ধ হন। এই ঘটনা ছিল বিদায়ী বছরের ১৭ এপ্রিলের। এপ্রিল থেকে শুরু করে ২০১৭ সালে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে প্রায় ৫শ ৪টি এসিড হামলার ঘটনা রেকর্ড করে পুলিশ। তবে এসিড হামলার সত্য সংখ্যা দ্বিগুন হতে পারে বলেও কারো কারো ধারণা। এসিড হামলা প্রতিরোধে ইতোমধ্যে সরকার কঠোর আইনের পরিকল্পনার ঘোষণা দিয়েছে। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই ইউকের বেশ কয়েকটি সুপার মার্কেট অনুর্ধ্ব ১৮ বছর বয়সী ক্রেতার কাছে স্বেচ্ছায় এসিড বিক্রি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।

২০১৭ সালের ১৩ জুলাই রাত ১০টা ২৫ মিনিট থেকে রাত ১১টা ৩৭ মিনিটের ভেতওে ইস্ট লন্ডনে ৫টি এসিড হামলার ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে প্রথম হামলার শিকার হয়েছিলেন জাবেদ হোসাইন। হামলার সঙ্গে সঙ্গে প্রচুর পরিমাণ ঠান্ডা পানি ঢেলে তার চোখ-মুখ রখখা করে পুলিশ। সুপারমার্কেটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান তিনি। তবে এক্ষেত্রে সরকারের আরো বেশি কিছু করার আছে বলেও উল্লেখ করে।

ইউকেতে হাজার হাজার ডিআইওয়াই শপে এসিড বিক্রি হচেছ। সব প্রতিষ্ঠানকে স্বেচ্ছায় অনুর্ধ্ব ১৮ বছর বয়সী কাস্টমারের কাছে এসিড বিক্রি বন্ধের আহ্বান জানানো হচ্ছে। তবে অনলাইন কেনাকাটায় এটি কিভাবে নিয়ন্ত্রিত হবে সে নিয়ে প্রশ্ন রয়ে গেছে।

Acid attacks: Retailers sign up to voluntary ban on acid sales

Some of the UK’s largest retailers have agreed to voluntarily stop sales of acids to customers under 18 years old.

A number of DIY stores and supermarkets have signed up to the ban, which will apply to drain cleaners and domestic products with high acid concentrations.

The Home Office has already proposed new laws to limit the sale of corrosive substances amid continuing concern over rising numbers of acid attacks.

A fifth of acid attackers identified in 2016-17 were under 18 years old.

The proposed legislation would make it unlawful to sell the substances to under-18s, and also make it a criminal offence to be in possession of acid in a public place without good reason.

The move would bring the law for household acids and harmful chemicals that are not already subject to legal restrictions into line with crimes relating to knives.

The public consultation on that proposal, which will have to go through Parliament, closed last month.

In the meantime, DIY chains B&Q, Screwfix and Wickes have committed to impose their own voluntary bans on sales to under-18s.

Supermarkets including Tesco, Waitrose, Morrisons and the Co-Op have also signed up.

The BBC has contacted the retailers to ask if they stock products affected by the ban.

Morrisons and Co-Op – the only firms to respond so far – both said they do not currently stock any products included in the ban.

The British Independent Retailers Association, which includes independent DIY and hardware shops, will also ask its members to sign up to the new voluntary ban.

Under it, retailers will agree not to sell to under-18s any of their products that contain harmful levels of acid or other corrosive substances, such as powerful drain cleaners.

The restrictions will apply to drain cleaners containing sulphuric acid, as well as paint strippers, limescale removers and other cleaning products with an acid concentration of more than 10% or 12%.

Staff will be expected to challenge buyers to prove their age in the same way that they do for solvents, spray paints and knives.

Crime minister Victoria Atkins said: “I’m pleased that so many of the UK’s major retailers are joining our fight… and signalling they are committed to selling acids responsibly.

“This is the next step of our acid attacks action plan that has already seen us consult on new laws to restrict young people’s access to acids.”

However, former chief prosecutor for the North West, Nazir Afzal, says the voluntary ban does not go far enough.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement