করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে এতো তোড়জোড় কেন? কি বলেন বিশেষজ্ঞরা (ভিডিও)

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : কোভিড-১৯-এ বিশ্বে এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার কোটির বেশি মানুষের আক্রান্ত হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে/ ব্রিটেন এবং আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে কোভিড-১৯-এর অন্তত ১১টি ঠিকা/ মানবদেহে পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রায় তৃতীয় পর্যায়ে রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে/ পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষে একটি ঠিকা বাজারাজত করতে কম পক্ষে ৮ থেকে ১০ বছর সময় লেগে যায়। অথচ কোভিন-১৯-এর ঠিকা খুব দ্রুত তৈরী হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন জাগতে পারে কেন? কোভিন-১৯-এর আগে করোনা সার্স এবং মার্স ছিল। সেগুলো থামাতে ভ্যাকসিন লাগেনি। তাহলে কোভিড-১৯-এর বেলায় ভ্যাকসিন আবিস্কারের জন্যে এতো তোড়জোড় কেন? এই প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন ডক্টর জাকি রিজওয়ানা আনোয়ার।

কিন্তু একটা সফল ভ্যাকসিন তৈরী কোরতে বছরের পর বছর পার হয়ে যায়। আবার অনেক ক্ষেত্রে যুগের পর যুগ পার হওয়ার পরও সফল ভ্যাকসিন তৈরীর হয় না। তিন চারযুগ পার হওয়ার পর আজও মরণঘাতী এইডস বা এইচআইভি’র ভ্যাকসিনের মুখ দেখা যায়নি। সেক্ষেত্রে কিসের ভরসায় কোভিড-১৯ বেলায় চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা আমাদের আশার আলো দেখাচ্ছে?

এদিকে অক্সফোর্ড-আস্ট্রজেনিকা বলছে/ ক্রিস্টমাসের আগেই ভ্যাকসিন চলে আসবে। অন্যদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ট ট্রাম্প আরো এক ধাপ এগিয়ে/ বলছেন নভেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই চলে আসবে ভ্যাকসিন। তাহলে কি ভ্যাকসিন বানিজ্যিক এবং রাজনৈতিক পারপাস সার্ভ করছে?

উল্লেখ্য আলোচিত ৪/৫টি ছাড়াও বিশ্বে আরো প্রায় ১শ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরীর গবেষণা অব্যাগত রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement