করোনা: হাসপাতাল ছাড়লেন বরিস জনসন

ব্রিট বাংলা ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর হাসপাতাল ছেড়েছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিন রাত নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ও দুই রাত ওয়ার্ডে থাকার পর রোববার লন্ডনের সেইন্ট থমাস হাসপাতাল ছাড়েন তিনি। তবে হাসপাতাল ছেড়ে গেলেও তাৎক্ষণিকভাবেই কাজে দিচ্ছেন না জনসন। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

খবরে বলা হয়, গত রোববার জনসনের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে সেইন্ট থমাসের আইসিইউ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানা টানা তিন রাত কাটানোর পর তার অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে তাকে গত বৃহস্পতিবার ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয়।
বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, আপাতত নিজের চেকারস নিজের বাসভবনে চিকিৎসা নেবেন জনসন। তাতক্ষণিকভাবে কাজে ফিরবেন না। তিনি নিজের চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য সেইন্ট থমাস হাসপাতালের প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

জনসনের বাগদত্তা ক্যারি সায়মন্ডস এক টুইটে লিখেছেন, সমর্থনের বার্তা পাঠানো প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আজ আমি অবিশ্বাস্যরকমের ভাগ্যবান বোধ করছি।

তিনি আরো লিখেন, আমি আমাদের অসাধারণ এনএইচএস কর্মীদের ধন্যবাদ দিয়ে শেষ করতে পারবো না। সেইন্ট থমাস হাসপাতালের কর্মীরা চমৎকার কাজ করেছেন। আমি কোনদিনই তাদের ঋণ শোধ করতে পারবো না।

সায়মন্ডস বর্তমানে গর্ভবতী। আগামী দুই মাসের মধ্যে তার সন্তান জন্মদানের কথা রয়েছে। জনসনের মধ্যে করোনা শনাক্তের পর থেকে তিনি সেল্ফ-আইসোলেশনে আছেন। তার মধ্যে মৃদু করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিয়েছে। তবে তিনি চিকিৎসাধীন নন।

Advertisement