কাতারের এশিয়ান টাউনে বাঙালী রেস্তোরাঁ প্রতিষ্ঠা

নিজস্ব সংবাদদাতা : কাতারে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু করেছে বাংলাদেশি অভিজাত রেস্তোরাঁ ইভিনিং স্পাইসি। এ উপলক্ষে ২৩ আগস্ট সন্ধ্যা থেকে শিল্পাঞ্চল সানাইয়ার এশিয়ান টাউনে অবস্থিত প্লাজা মলে জড়ো হতে থাকেন বিপুলসংখ্যক মানুষ।
প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির সামাজিক, রাজনীতিক ও ব্যবসায়ী নেতাদের মিলনমেলায় পরিণত হয় ইভিনিং স্পাইসির সুসজ্জিত হল। রাত সাড়ে আটটায় উপস্থিত অতিথিদের অংশগ্রহণে আনুষ্ঠানিকভাবে কেক কাটার মধ্য দিয়ে ইভিনিং স্পাইসির উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।
সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় এই রেস্তোরাঁর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরিফুল হক সাজু বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য ঘরোয়া আবহে দেশীয় খাবার পরিবেশনের প্রতিশ্রুতি নিয়ে আমাদের এই রেস্তোরাঁর যাত্রা। খাবারের গুণগত মান রক্ষা করে স্বাদে সবার চেয়ে সেরা হতে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।
অনুষ্ঠানে কাতারি স্পন্সরের পক্ষে মুহাম্মদ আলী আলনোয়াইমি ও ইভিনিং স্পাইসির অংশীদার আজিজুর রব চৌধুরী এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ছোট ভাই রেদওয়ানুল হক উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধনের পর মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা ওবায়দুল্লাহ। পরে উপস্থিত সবার সম্মানে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার বিরিয়ানি পরিবেশনের মাধ্যমে নৈশভোজ ও আপ্যায়ন পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
কাতারপ্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির বিশিষ্টজনদের মধ্যে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বোরহান উদ্দীন শরীফ, আব্দুস সাত্তার, নজরুল ইসলাম, আলাউদ্দীন, আব্দুল মতিন পাটোয়ারী, শহিদুল হক, পেয়ার মোহাম্মদ, এস এম ফরিদুল হক, শফিকুল ইসলাম তালুকদার, হাজী বাশার সরকার, মকবুল হোসেন, মেজবাউল করিম বাবলা, শাহজাহান সাজু, সালাহউদ্দীন আহমদ প্রমুখ।
আরও উপস্থিত হয়েছিলেন আলহাজ আব্দুর রউফ, আলহাজ জামাল আহমদ, জামালউদ্দীন তফাদার, আবু সাইদ, সালেহ আহমদ খোকন, আনোয়ার হোসেন টিপু, আব্দুল খালেক প্রমুখ।
কাতারের এশিয়ান টাউনে বর্তমানে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি বসবাস করছেন। এছাড়া ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কাসহ বিভিন্ন দেশের বিপুলসংখ্যক অভিবাসী এই এলাকায় বাস করেন। ইভিনিং স্পাইসি সব দেশের গ্রাহকদের কাছে আধুনিক আবহে বাংলা খাবারের স্বাদ ও পরিচয় তুলে ধরবে, এমন আশা প্রকাশ করেন উপস্থিত প্রবাসীরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement