চার্লসের দিকে ডিম ছুড়ে গ্রেফতার ছাত্র

বৃটিশ রাজপাটের দায়িত্ব এখন রাজা চার্লসের হাতে। সেই রাজার দিকেই এবার ছোড়া হলো ডিম। ইয়র্ক সফরের সময় রাজা ও রানীর কনসোর্টের দিকে ডিম ছুড়ে মারার পর এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজ দম্পতিকে অভ্যর্থনা জানাতে শহরের ঐতিহ্যবাহী রাজকীয় প্রবেশদ্বার মিকলগেট বারে ভিড় জড়ো হওয়ার সাথে সাথে ওই বিক্ষোভকারী যুবককে পুলিশ আগেই সংযত করেছিল । এর মধ্যেই ২৩ বছর বয়সী ওই যুবককে ডিম ছোড়ার পর চিৎকার করে বলতে শোনা যায় “এই দেশটি ক্রীতদাসদের রক্তে নির্মিত হয়েছিল”। ওই যুবক ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্র, তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। ভিড়ের মধ্যে থেকে তখন রাজাকে ধিক্কার জানিয়ে স্লোগান উঠতে থাকে। ঘটনাটি ইয়র্কশায়ারে একটি সরকারি রাজকীয় সফরের দ্বিতীয় দিনে ঘটেছিল, যে সময় রাজা এবং রানী কনসোর্ট পরে ডনকাস্টারে ভ্রমণ করছিলেন। ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয় বলেছে যে তারা তাদের প্রতিষ্ঠানের ছাত্রের কীর্তি দেখে “আতঙ্কিত” এবং তার অসদাচরণ পর্যালোচনা করে দেখা হবে। রাজ দম্পতিকে ইয়র্কে শহরের নেতারা যখন স্বাগত জানাচ্ছিলেন যখন প্রতিবাদকারী রাজা-রানীর দিকে বেশ কয়েকটি ডিম নিক্ষেপ করে।চার্লস লর্ড মেয়র সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে করমর্দন অব্যাহত রেখেছিলেন যখন ডিমগুলি তার দিকে উড়ে আসছিলো। যদিও তার গায়ে একটি ডিমও লাগেনি, সেগুলি সব পায়ের কাছাকাছি এসে পড়েছিলো। প্রত্যক্ষদর্শী ব্লসম স্ট্রিট গ্যালারির মালিক কিম ওল্ডফিল্ড বলেছেন, তিনি তার দোকানের দরজায় দাঁড়িয়ে রাজ দম্পতির আগমনকে আনন্দে উপভোগ করছিলেন তখন এই ডিম ছোড়ার খবর তার কানে আসে। প্রায় ৫টি ডিম ছোড়া হয়েছিলো। মায়ের মৃত্যুর পরে এখন জনসাধারণের কাছাকাছি যাবার চেষ্টা করছেন রাজা। গতকাল তিনি লিডসের রাস্তায় সারিবদ্ধ ভিড়কে স্বাগত জানিয়েছেন। যুক্তরাজ্যের সিনিয়র রাজনীতিবিদরা বলছেন মার্কিন প্রেসিডেন্টের তুলনায় যুক্তরাজ্যের কিং চার্লসের নিরাপত্তা বেষ্টনী বেশ দুর্বল। ইয়র্কের আর্চবিশপ স্টিফেন কটরেল বলেছেন যে এই ঘটনাটির পরও রাজ দম্পতি জনসাধারণের সাথে দেখা বন্ধ করেননি। পরে, রাজা আনুষ্ঠানিকভাবে দক্ষিণ ইয়র্কশায়ারের ডনকাস্টারে পৌঁছানোর সাথে সাথে জনতা তাদের সাগ্রহে বরণ করে নেন।সূত্র : bbc.com

Advertisement