‘ছাত্রলীগ-যুবলীগ-আওয়ামী লীগ কোনো পরিচয়ই বিবেচনা করা হবে না’

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জাম্মেল হক বলেছেন, বর্তমান সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়ন করছে। অন্যায়কারী যেই হোক না কেন কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ কোনো পরিচয়ই বিবেচনা করা হবে না।

খালেদা জিয়াকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী এতিমের টাকা লুটপাট করেছেন, অপরদিকে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী লুটেরাদের আইনের আওতায় আনছেন।

রোববার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের পঞ্চমীঘাট এলাকায় অবস্থিত পোদ্দার বাড়ি পূজামণ্ডপ পরিদর্শনে এসে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে সব ধর্মের লোকজনই সমান। সবাই রাষ্ট্রীয়ভাবে সমান অধিকার ভোগ করবে। আমাদের সংবিধান এ নিশ্চয়তা দিয়েছে। বর্তমান সরকার কাউকে ধর্মীয় সংখ্যালঘু মনে করে না।সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে প্রত্যেক ধর্মীয় উৎসবে আমরা অংশগ্রহণ করছি। ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

মন্ত্রী বলেন, সংবিধানে জাতির পিতা সংযুক্ত করে গেছেন ‘ধর্ম যার যার, রাষ্ট্র সবার’ সে অনুযায়ী আমরা সবাই মিলেমিশে যার যার ধর্ম পালন করব। অনেক রক্তের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। শহীদদের রক্ত যাতে বৃথা না যায় সে জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। আমরা এ দেশকে যেমন পেয়েছি তার চেয়ে আরও অনেক বেশী উন্নত করে রেখে যেতে চাই।

মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থেকে ভিন্ন খাতে দেশকে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা করছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে হবে।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জসিমউদ্দিন, পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ, বিশিষ্ট শিল্পপতি অমল পোদ্দার, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিনা আক্তার, সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)নাজমুল হুসাইন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের স্বেচ্ছাসেবকলীগের শিক্ষা ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক মো. জাকির হোসেন, সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement