জরিমানা দিলেও পদত্যাগ করছেন না বরিস জনসন

পার্টিগেট কেলেঙ্কারির জেরে দোষী সাব্যস্ত ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, তার স্ত্রী ক্যারি এবং অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাককে ৫০ পাউন্ড করে জরিমানা করা হয়েছে। তবে এই জরিমানার অর্থ জমা দিলেও বিরোধীদের দাবি তারা নাকচ করে দিয়েছেন বলে জানা গেছে।ব্রিটেন জুড়ে কড়া লকডাউন চলাকালীন কোভিড-বিধি ভেঙে একাধিক পার্টি করার অভিযোগ উঠেছে বরিসের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে জন্মদিনের পার্টি হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের বাসভবনের ক্যাবিনেট অফিসে। এই জরিমানা সেই কারণেই করা হয়। নিয়ম ভাঙার জন্যে বুধবার এক বিবৃতিতে ব্রিটেনবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বরিস।জন্মদিনের সেই পার্টি প্রসঙ্গে বরিসের জানান, মাত্র মিনিট দশেকের জন্যে ক্যাবিনেট রুমে ওই অনুষ্ঠান হয়েছিল। তাকে অভিনন্দন জানাতে অল্প কয়েকজন জমায়েত হয়েছিল।এ ব্যাপারে অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাকও ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন।

Advertisement