প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরে স্মারকলীপি প্রদান করেছে অল-বৃটিশ-বাংলাদেশী-কার্গো-এজেন্টস-এসোসিয়েশন

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : বিলেতে বাংলাদেশী কার্গো ব্যবসার বিদ্যমান সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা কামনা করে লন্ডনে হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিমের কাছে স্মারকলীপি হস্তান্তর করেছে অল-বৃটিশ-বাংলাদেশী-কার্গো-এজেন্টস-এসোসিয়েশন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে অল-বৃটিশ-বাংলাদেশী-কার্গো-এজেন্টস-এসোসিয়েশনের নেতাদের সাথে তাদের দাবী-দাওয়া নিয়ে স্মারকলিপি প্রদান অনুষ্ঠানে লন্ডনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম বলেছেন, মহামারির সময়েও ব্রিটেন থেকে ১ দশমিক ২বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছে প্রবাসীরা। এসময় তিনি আরও বলেন, বৃটেন থেকে বাংলাদেশে কার্গো পণ্য পাঠানোর সাথে মানবিক দিক ও সমাজসেবার মতো বিষয় জড়িত। তাই কার্গোতে ব্যক্তিগত মালামাল পাঠানোর সকল বাঁধা দূর করতে হাইকমিশন আন্তরিকভাবে কাজ করবে।

কার্গো ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশে হাউসহোল্ড পন্যের কার্গো পাঠানো প্রায় ৫ মাস যাবত বন্ধ রয়েছে। কভিড ক্রাইসিসে সহজি করনের বদলে, কাস্টমস এর কিছু কঠিন নিয়মের কারনে এই জটিলতা সৃষ্টি হয়ে। একথা জানাতে বৃহস্পতিবার লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনার যান অল বৃটিশ বাংলাদেশী কার্গো এজেন্টস এসোসিয়েশনের নেতারা। এসময় হাইকমিশনার জানান কভিড এর কারনে লন্ডন থেকে বাংলাদেশে বিমানের ফ্লাইট কমিয়ে সপ্তাহে একটি করা হলেও তাতেও খালি যাচ্ছে বিমান। কিন্তু তারপরও কার্গোর মাধ্যমে পণ্য প্রেরনের চাহিদা রয়েছে।
কভিড পরিস্থিতিতেও যুক্তরাজ্য থেকে বিশাল অংকের অর্থ প্রেরন করায় প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

আর মহামারির এই সময়ে কার্গো প্রেরনের জন্য নিয়ম সহজ করার পাশাপাশি মানবিক দিক বিবেচনারও আহবান ব্যবসায়ীদের।
ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন কার্গো সার্ভিস বন্ধ থাকায় সরকার যেমন রাজস্ব হারাচ্ছে তেমনি ব্রিটেনে এজেন্ট-সাব এজেন্ট মিলিয়ে প্রায় ৪শ প্রতিষ্ঠানের ব্যবসা বন্ধ আর কর্মহীন প্রায় দু‘ হাজার। তারা দ্রুত এই সমস্যার সমাধানের আহবান জানিয়েছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অল বৃটিশ বাংলাদেশী কার্গো এজেন্টস এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মনির আহমদ, জেনারেল সেক্রেটারী মিটু পাল, প্রেসিডেন্ট মিজানুল হক, কমিউনিটি নেতা নূরুল ইসলাম, রবিন পাল ও কর্মাশিয়াল কাউন্সিলার জাকারিয়া হক।

Advertisement