প্রীতির ইসরায়েল প্রীতি : তদন্ত বা পদত্যাগ চায় লেবার

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : হলিডে কাটানোর সময় ইসরায়েলী সরকারের প্রতিনিধির সঙ্গে আনঅফিসিয়াল মিটিং করার পর ক্ষমা চেয়েও রক্ষা পাচ্ছেন না ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলাপমেন্ট সেক্রেটারী প্রীতি পাটেল। লেবার পার্টির পক্ষ থেকে প্রীতি পাটেলের এই মিটিংয়ের বিষয়ে তদন্ত দাবী করা হয়েছে। অন্যতায় তাকে পদত্যাগের আহ্বানও জানিয়েছে লেবার। মঙ্গলবার পার্লামেন্টে শেডো ডিএফআইডি সেক্রেটারী কেইট অসামোর এই দাবী তুলেন।
গত অগস্টে হলিডে কাটানোর জন্যে ইসরায়েলে গিয়েছিলেন ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলাপমেন্ট সেক্রেটারী এবং ব্রেক্সিট সমর্থক প্রীতি পাটেল। বেসরকারী ওই হলিডে কাটানোর সময় তিনি ইসরায়েলী প্রতিনিধিদের সঙ্গে ১২টি মিটিং করেছেন। এর মধ্যে একটি ছিল ইসলায়েলী প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে। পার্লামেন্টারী কোড অব কন্ডাক্ট ভেঙ্গে বেসরকারী সফরে গিয়ে এ ধরনের মিটিং করার দায়ে মঙ্গলবার ক্ষমা চেয়েছেন প্রীতি পাটেল। তার এই মিটিংয়ের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নিজেও অবগত ছিলেন না বলে প্রধানমন্ত্রী থেরিজা মে জানিয়েছেন। এরপরই প্রীতি পাটেল ক্ষমা চান। যদি ফরেইন সেক্রেটারী এ বিষয়ে জানতেন বলে দাবী করেন তিনি। মিটিংয়ে তিনি ইসলায়েলী কর্তৃপক্ষকে বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ ও সুপারিশ করেন বলে জানা গেছে।
এই ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন প্রীতি পাটেল। নিজ দল কনজারভেটিভ পার্টির অনেক সাবেক কুটনীতিক তার এই বৈঠকের সমালোচনা করেন। এ বিষয়ে মুখ খুলেছে লন্ডনে অবস্থানরত ফিলিস্তিনের এম্বেসেডরও। ইসলায়েল এবং ফিলিস্তিনের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইউকের বিশ্বাসযোগ্যতা ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে বলে মন্তব্য করেছেন ফিলিস্তিনের এম্বেসেডর।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement