ব্রিট বাংলা ডেস্ক : সোমালিয়া বংশোদ্ভূত আমেরিকান মডেল তারকা হালিমা আদেন। সম্প্রতি ফ্যাশন শো ছেড়ে চলে আসেন বিশ্বের প্রথম হিজাবী এ মডেল তারকা। কারণ ফ্যাশন শো ইন্ডাস্ট্রি তাকে ধর্মীয় বিশ্বাস পরিহার করে চলতে বাধ্য করছিল।

ইনস্ট্রাগ্রামের একাধিক পোস্টে ২৩ বছর বয়সী আদেন তুলে ধরেন, চাকরি কীভাবে পেশাগত পরিচয় থেকে তাকে দূরে সরিয়ে দেয়।

তিনি জানান, করোনা মহামারিকালে একজন মুসলিম নারী হিসেবে তাঁর মূল্য কতটুকু, তা নিয়ে ভাবার সুযোগ হয়েছে। আদেন বলেন, ‘অবশেষে আমি উপলব্ধি করি যে ব্যক্তিগতভাবে আমার হিজাব পরিধানে ত্রুটি ছিল।

তিনি আরো বলেন, ‘সমাজে হিজাব পরিধান করে চলাচল করা সত্যিই একটি কঠিন কাজ।’ মডেলিংকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করা নিয়ে আদেন জানান, সুযোগের চেয়েও বেশি গ্রহণ করি যা আমার জন্য কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায়।’

একজন কৃষ্ণাঙ্গ মুসলিম নারী হিসেবে ইন্ডাস্ট্রিতে সফল হলেও নানা করম চাপ অনুভব করেন তিনি। তাছাড়া ফটোশুটের সময়ের অস্বস্তিবোধও পীড়া দেয় তাকে।

আদেন আরো বলেন, ‘আমাকে ১০ বিলিয়ন ডলার দেওয়া হলেও আমি হিজাব নিয়ে কোনো আপোষের ঝুঁকি গ্রহণ করব না। আমাকে আগের মতো হিজাব নিয়ে কোনো ছাড় দেব না।’

কেনিয়ার একটি শরণার্থী শিবিরে হালিমার জন্ম। ছয় বছর বয়সে বাবা-মায়ের সঙ্গে উন্নত জীবনের প্রত্যাশায় আমেরিকায় পাড়ি জমান তিনি।

১৮ বছর বয়সে তিনি ইন্টারন্যাশনাল মডেলিং এজেন্সি (আইএমজি)-এর সেরা মডেলের তালিকাভূক্ত হন। হিজাব পরা প্রথম নারী হিসেবে ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মিস মিনেসোটা হিসেবে সেমিফাইনালে অংশগ্রহণ করেন।

Advertisement