ফ্রি বিতরনের জন্যে ইউরোপের ১৭টি দেশে পবিত্র কোরআন পাঠাচ্ছে লন্ডনের আলকোরআন একামেডী

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : চলতি বছর ইউকের প্রিজন সার্ভিসে কারাভোগিদের জন্য প্রায় ১৫ হাজার ফ্রি কোরআন বিতরনের পর এবার আরো ১৫ থেকে ২০ হাজার পবিত্র কোরআন যাবে ইউরোপের ১১টি দেশে ফ্রি বিতরনের উদ্যোগ নিয়েছে লন্ডনের আল কোরআন একাডেমী। এসব কোরআন শরিফ এরিমধ্যে তুরস্ক থেকে প্রিন্ট হয়ে লন্ডনে চলে এসেছে।

একেবারে সহজ সরল ভাবে ইংরেজি, বাংলাসহ নানা ভাষায় মুসলমানের মধ্যে ফ্রি কোআরন পৌঁছে দেয়ার এই বিশাল কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে লন্ডনের আল কোরআরন একাডেমী। এই চ্যারিটি সংস্থ্যার উদ্যোগে এরিমধ্যে প্রায় মিলিয়ন কপি ফ্রি কোরআন বিতরন করা হয়েছে। ধারাবাহিক ফ্রি বিতরনের অংশ হিসেবে এবার অনুবাদকৃত প্রায় ১৫ হাজার কোরআন পৌছবে ইউরোপের ১১টি দেশে। তুরস্ক থেকে প্রিন্ট হয়ে প্রায় ২০ হাজারের বেশি কোরআনের কপি লন্ডনে চ্যানেল এস অফিসে এসে পৌঁছেছে। ধীরে ধীরে এগুলো পাঠানো হবে গন্তব্যে। আল কোরআন একামেডীর চেয়ারম্যান ডক্টর হাফিজ মনির উদ্দিন আহমদ জানিয়েছেন, এর আগে চলতি বছরের ভেতরেই ইউকের বিভিন্ন প্রিজন সার্ভিসে প্রায় ১৫ হাজার কপি কোরআন ফ্রি বিতরণ করা হয়েছে।
চ্যানেল এসের মাধ্যমে ফান্ড রেইজিং এবং নিয়মিত কিছু দাতাদের সহযোগিতায় ফ্রি কোআন বিতরনের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে আল কোরআন একাডেমী। আলকোরআন একাডেমীর নিয়মিত দাতা হাফিজ জামিল আহমেদ, মুজিবুর রহমান, নাজিফা করিম খান, তাহমিনা আক্তার খান এবং নাজরুল করিম পাঠান শুধু দান করেই ক্ষান্ত থাকেন না। ইউরোপের ১১টি দেশে পবিত্র কোরআন গ্রন্থ পাঠানোর জন্যে প্যাকেজিংয়ের কাজ পরিদর্শন করতে তারা এসেছিলেন চ্যানেল এস অফিসে। সব কিছু দেখে তারা সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় তারা জানান, নরওয়ে থেকে মেয়ের পড়াশোনা সূত্রে লন্ডনে এসে চ্যানেল এস ও আল কোরআনএকাডেমীর কার্যক্রম দেখে অভিভূত তারা।

চ্যানেল এস ফাউন্ডার মাহি ফেরদৌস জানান, মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন নিজের ভাষায় অনুবাদ করে পড়ার সুযোগ করে দিচ্ছে আল কোরআন একামেডী। এই কোরআন পড়ে হাজার হাজার মানুষ উপকৃত হচ্ছে। এ রকম একটি চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান চ্যানেল এসের সঙ্গে পার্টনার হিসেবে কাজ করছে, তা সত্যিকার অর্থেই চ্যানেল এসের জন্যে গর্বের বিষয়। আমরাও গর্বের সঙ্গে বলতে পারছি যে, দাতাদের অর্থ যথার্থভাবে কাজে লাগাচ্ছে আলকোরআন একাডেমী।

Advertisement