বন্যা মোকাবিলায় ৪৪৮টি নদী-খাল খনন করা হচ্ছে: প্রতিমন্ত্রী

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, বন্যা-জলোচ্ছ্বাস মোকাবিলায় দেশের ৪৪৮টি নদী-খাল খননের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আরও ৫০০ নদী-খাল খননের প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে। এসব নদী ও খাল খনন প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে দেশ বন্যা ও জলোচ্ছ্বাসের কবল থেকে সুরক্ষা পাবে।

পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক আজ শনিবার সকালে বরিশালে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। আজ সকাল ১০টায় প্রতিমন্ত্রী বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আশায় কর্মরতদের কৃতি সন্তানদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘পাশের দেশের বৃষ্টির পানি আমাদের দেশের নদ-নদী হয়ে বঙ্গোপসাগরে যায়। কিন্তু নদী-খালের নাব্যতা না থাকায় ওই পানিতে বন্যা হয়। এ কারণে দেশের ৬৪ জেলার নদী-খালের নাব্যতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রথম দফায় ৪৪৮টি নদী-খাল খনন করা হচ্ছে। পরে আরও ৫০০ নদী-খাল খননের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ভবিষ্যতে দেশে বন্যা ও ক্ষয়ক্ষতি তুলনামূলক কমবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘চলতি বছর দেশের কয়েকটি জেলায় বন্যা ও নদী ভাঙন দেখা দিলে এগুলোর বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছে। শরীয়তপুরের নড়িয়ায় নদী ভাঙন পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাধ্যমতো চেষ্টা চলছে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

এরপর প্রতিমন্ত্রী বরিশাল নগরের হাসপাতাল রোডের একটি পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন। এ ছাড়া তিনি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একটি প্রকল্পের স্থান পরিদর্শন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement