বাতিল হল ইংল্যান্ডে লেটিং এজেন্সি ফি

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : ভাড়া নেওয়ার আগে বাসা-বাড়ি দেখার জন্যে কিংবা টেনেন্সি সেট-আপ বা রেফারেন্স চেক করার জন্যে এখন থেকে আর বাড়তি অর্থ গুণতে হবে না ইংল্যান্ডের প্রাইভেট টেনেন্টদের। সরকারের নতুন আইন অনুযায়ী, পহেলা জুন, শনিবার থেকে ইংল্যান্ডে লেটিং এজেন্সি ফি অবৈধ হয়ে গেছে।
২০১৬ সালের নভেম্বরে চ্যান্সেলার ফিলিপ হ্যামন্ড লেটিং এজেন্সি ফি বাতিলের ঘোষণা দিয়েছিলেন। প্রায় আড়াই বছর পর ১লা জুন থেকে সরকারের এই ঘোষণা আইনে পরিণত হল। নতুন আইন অনুযায়ী, ভাড়া করার জন্যে বাড়ি দেখা, টেনেন্সি সেট-আপ অথবা চেক-আউটের জন্যে টেনেন্টদের আলাদা কোনো ফি দিতে হবে না। ফি নিলে তা অবৈধ হিসেবে গণ্য হবে।
সিটিজেন এডভাইস ব্যুারো জানিয়েছে, ইংল্যান্ডে প্রাইভেট টেনেন্টরা মাসে প্রায় ১৩ মিলিয়ন পাউন্ড লেটিং ফি পরিশোধ করে থাকেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বাড়ি দেখা এবং রেফারেন্স চেক করার জন্যে এই ফি পরিশোধ করে থাকেন টেনেন্টরা। ২০১৬ সালের নভেম্বরে সরকারের টেনেন্সি ফি বাতিলের ঘোষণার পর থেকে পহেলা জুন পর্যন্ত প্রায় ২শ ৩৪ মিলিয়ন পাউন্ড লেটিং ফি পরিশোধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সিটিজেন এডভাইস ব্যুরো।
এই সংস্থার পক্ষ থেকে লেটিং ফি বাতিলের পাশাপাশি ডিপোজিট হিসেবে ৬ সপ্তাহের বদলে ৪ সপ্তাহের আগাম ভাড়া পরিধোশ করার বিষয়টি আইনের ভেতরে নিয়ে আসার জন্যে সরকারের কাছে আহ্বান জানানো হয়েছিল। তবে নতুন আইনে সরকার ৬ সপ্তাহের বদলে ৫ সপ্তাহের ভাড়া ডিপোজিট হিসেবে পরিশোধের কথা বলেছে।
উল্লেখ্য, স্টকল্যান্ডে ২০১২ সাল থেকে এ ধরনের আইন কার্যকর রয়েছে। আর আগামী সেপ্টেম্বর থেকে ওয়েলসে একই আইন কার্যকর হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement