বার্সেলোনার বিপক্ষে ‘যুদ্ধে’ নামলেন মেসি

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই ‘অনমনীয়’ মনোভাব বজায় রেখেছে দু’পক্ষই। আগামীকাল সোমবার থেকে অনুশীলন শুরু বার্সেলোনার। তার আগে আজ রোববার কভিড-১৯ পরীক্ষা করাতে হবে ফুটবলারদের। সেই পরীক্ষায় অংশ নেবেন না বলে বার্সেলোনাকে জানিয়ে দিয়েছেন মেসি। ছয়বারের ফিফা বর্ষসেরা বার্সেলোনা ছাড়তে চান একটা সৌহার্দ্যপূর্ণ বোঝাপড়ার মাধ্যমে। সেজন্য ক্লাবের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কাতালান জায়ান্টরা জানিয়ে দিয়েছে, শুধুমাত্র নতুন চুক্তি নিয়ে কথা বলতে চাইলেই কেবল তারা আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি। মেসি সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন।

রোববারের কভিড-১৯ পরীক্ষায় মেসি অংশ না নিলে শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে অভিযুক্ত হবেন কি না সেটা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

তবে মেসির আইনজীবীরা মনে করেন, ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে বার্সেলোনাকে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়ার পরই চুক্তির সকল বাধ্যবাধকতা শেষ হয়ে গেছে।

বার্সেলোনা সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ কোনভাবেই চান না, তার সময়ে ক্লাব ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড়টি অন্য ক্লাবের জার্সি গায়ে জড়াক। এমনটাই দাবি করেছে কাতালুনিয়া রেডিও। তবে ৭০০ মিলিয়ন ইউরোর রিলিজ ক্লজ যদি কোন ক্লাব দিতে রাজি হয় তবেই মেসিকে ছাড়বে বার্সেলোনা। এত দাম দিয়ে মেসিকে দলে ভেড়ালে আইনি জটিলতায় পড়তে হতে পারে মেসি ও সংশ্লিষ্ট ক্লাবকে। সেজন্যই সমঝোতার মাধ্যমে রিলিজ ক্লজের বিষয়টি সমাধান করতে চাইছিলেন আর্জেন্টাই সুপারস্টার। বার্সেলোনা রাজি না হওয়ায় কভিড-১৯ পরীক্ষা ও অনুশীলনে অংশহগ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মেসি-বার্সা ‘যুদ্ধে’র সমাপ্তিটা সৌহার্দ্যপূর্ণ বোঝাপড়ার মাধ্যমে না হলে সেটা আদালত পর্যন্ত গড়াতে পারে। ছোটবেলা থেকে যে ক্লাবের সঙ্গে ভালবাসার সম্পর্ক তাদের বিরুদ্ধে মেসিকে আইনি লড়াইয়ে নামতে হলে বিষয়টি দুই পক্ষের ভাবমূর্তির জন্যই ভালো হবে না।

Advertisement