বৃটেনে ১১১ জন বৃটিশ বাংলাদেশী কাউন্সিলরকে সংবর্ধনা দিয়েছে ক্যানারি ওয়ার্ফ গ্রূপ

বৃটেনের নানা প্রান্থের বারা, কাউন্টি এবং সিটি কাউন্সিলে ২০১৫ সালে তথা সর্বশেষ নির্বাচিত কাউন্সিলাদের সম্মাননা দিয়েছে ক্যানারি ওয়ার্ফ গ্রূপ। অতিথিরা এই সংবর্ধনায় বলেছেন, এরা হচ্ছেন কাউনিটির আইকন। তারা শুধু তাদের পার্টি আর এলাকাকে সেবা দিচ্ছেন না, তারা গর্বিত করছেন বিলেতের বাঙালী কমিউনিটিকে, উৎসাহিত করছেন তরুনদের।

ক্যানারিয়ার্ফের এসোসিয়েট ডিরেক্টর জাকির খানের পরিচালনায় এতে এর চেয়ারম্যান, সিইও এমডিসহ বিশিষ্টজন উপস্থিত ছিলেন।
সুদুর কারলাইল থেকে কাডির্ডফ, ওল্ডহাম থেকে সু্ইন্ডন, লন্ডন থেকে লুটন ইউকের বিভিন্ন শহর থেকে এসেছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশী কাউন্সিলররা। পুরো ইউকে জুরে প্রায় দেড়শ বাঙালী কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এরমধ্যে টাওয়ার হ্যামলেটস থেকে ২০১০ সালে সরাসরি ভোটে বারার প্রথম এবং ইউকের মধ্যে প্রথম বাংলাদেশী এবং ‍মুসলিম মেয়র নির্বাচিত হন লুৎফুর রহমান। এছাড়াও পুরো ইউকেজুড়ে সিরমনিয়েল মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বা করেছেন প্রায় ৩০ জনের বেশি বাঙালী কাউন্সিলর।

নারী কাউন্সিলাররের সংখ্যাও কম নয় এবং এটি লন্ডন ইনার সিটিতেই বেশী। অন্যদিকে পার্লামেন্টে যে তিন বৃটিশ বাঙালী এমপি রয়েছেন, তারা তিনজনই মহিলা। সমাবেশে বৃটিশ মূলধারার রাজনীতিতে বাঙালী মহিলাদের অগ্রযাত্রার প্রসংশা করা হয়। বাঙালী প্রথম হাউস অব লর্ড সদস্যও মহিলা।

সমাবেশে প্রথম হাউস অব লর্ডস সদস্য ব্যারোনেস পলা উদ্দিন, টোরি এমপি পল স্ক্যালি এবং চ্যানেল এস চেয়ারম্যান আহমেদুস সামাদ চৌধুরী জেপিসহ বিশিষ্টজন এওয়ার্ড প্রদানে অংশ নেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement