ব্যাট তৈরিতে আর উইলো নয়, এখন থেকে বাঁশ!

তাহলে ঐতিহ্যবাহী উইলো কাঠ তার ঐতিহ্য হারাতে চলেছে? ক্রিকেটের ব্যাট তৈরিতে উইলো গাছের কাঠ ব্যবহার করা হয়। এটা সবারই জানা। এ কারণে ব্যাটসম্যানদের উইলোবাজও বলা হয়ে থাকে। অনেক কমেন্টেটর কমেন্ট্রি করতে গিয়ে বলেন, ‘অমুক ব্যাটসম্যানের উইলো থেকে এলো এত রান।কিন্তু সেই উইলোর জায়গা নিতে চলেছে বাঁশ। না, ঠাট্টা নয়। সত্যি সত্যিই। ইংল্যান্ডের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় ক্রিকেটের ব্যাট তৈরিতে বাঁশের ব্যবহারে অভাবনীয় সাফল্য দেখা গেছে। যার ফলে ক্রিকেট ব্যাট তৈরির খরচও কমিয়ে আনা যাচ্ছে কয়েকগুন। ক্রিকেটারদেরও ব্যাট কিনতে গিয়ে আর কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা খরচ করতে হবে না।মোটকথা, ক্রিকেট ব্যাট তৈরিতে বাঁশের ব্যবহারের ফলে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে সব পক্ষই।

ইংল্যান্ড কিংবা কাশ্মিরে জন্মানো উইলো গাছের কাঠ থেকেই সাধারণত বর্তমান সময়ে ব্যবহার করা ব্যাটগুলো তৈরি করা হয়। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’জন গবেষক, দারশিল শাহ এবং বেন টিঙ্কলার ডেভিস গবেষণা করে বের করেছেন, উইলো কাঠের চেয়ে অনেক কম খরচে বাঁশ দিয়ে ব্যাট তৈরি করা সম্ভব।দ্য টাইমসকে দেওয়া নিজেদের আবিষ্কৃত ব্যাট নিয়ে দারশিল শাহ বলেন, ‘বাঁশের ব্যাটের সুইট স্পট এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যেটার আঘাতে ইনিংসের সূচনাতেও ইয়র্কার লেন্থের বলকে বাউন্ডারি বানানো যাবে। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো, এই ব্যাট দিয়ে সব ধরনের স্ট্রোক খেলা সম্ভব।গার্ডিয়ান পত্রিকার দাবি, ‘ইংলিশ উইলো গাছের পরিমাণ কমে যাওয়া এবং কাঠ সরবরাহে সঙ্কট দেখা দেওয়ায় একটা বড় ধরনের সমস্যা তৈরি হয়েছে। একটি গাছ রোপন করার পর এটা থেকে ভালোমানের কাঠ সংগ্রহ করতে অন্তত ১৫ বছর সময় লাগে। এ কারণে হয়তো নতুন করে গাছ লাগানোও হচ্ছে; কিন্তু অপ্রতুলতা দেখা দিয়েছে এরই মধ্যে। আবার সংগৃহীত কাঠ থেক ব্যাট তৈরি করতে গেলে ১৫ থেকে ৩০ ভাগ কাঠ নষ্ট (ওয়েস্টেজ) হয়ে যায়।’

দারশিল শাহ বিশ্বাস করেন, বাঁশের ব্যাট অনেক কমদামে তৈরি করা সম্ভব। বাঁশ হচ্ছে দ্রুত বর্ধনশীল একটি গাছ (মূলতঃ বাঁশকে ঘাস হিসেবে গণ্য করা হয়)। প্রচুর পরিমাণে জন্মে এবং টেকসই উপাদান রয়েছে এর মধ্যে। এর অঙ্কুরগুলি আগের গাছ থেকে বেড়ে ওঠে এবং সাত বছরের মধেই একটা পূর্ণ ব্যবহারযোগ্য বাঁশ পাওয়া যায়।শাহ বলেন, ‘বাঁশের ব্যাট দিয়ে ক্রিকেট অপ্রচলিত দেশগুলো যেমন- জাপান, চীন, দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোতে দ্রুত ক্রিকেটকে জনপ্রিয় করে তোলা সম্ভব হবে।বাঁশ দিয়ে ব্যাট তৈরি করা সম্পর্কিত ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশ করেছে স্পোর্টস ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি জার্নালে। দুই গবেষক জানিয়েছেন, তাদের ব্যাটের প্রোটোটাইপ তৈরি হয়েছে বাঁশের কঞ্চি এবং টুকরোগুলোকে কঠিন আঠালো পদার্থ দিয়ে জোড়া লাগিয়ে। একটার পর একটা স্তর তৈরি করে।গবেষকদের মতে, তাদের ব্যাট উইলো কাঠের তৈরি ব্যাটের তুলনায় অনেক কঠিন এবং শক্তিশালী। শাহ বলেন, ‘উইলো ব্যাটের চেয়ে অনেক শক্ত এই ব্যাট এবং আমরা এই ব্যাট নিয়ে খুবই আশবাদী।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement