ব্রিটেনে এ্যাথনিক গ্রাজুয়েটধারীর চাকুরীর ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে : Ethnic minority graduates ‘face jobs gap’

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : ব্রিটেনে চাকুরী বাজারে এথনিক কমিউনিটির গ্রাজুয়েটরা তুলনামূলক কম সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে। দ্যা রেজুল্যুশন ফাউন্ডেশনের এক সার্ভে রিপোর্টে বলা হয়েছে, বৃটিশ শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় এখানকার বিএএমই অর্থাৎ ব্ল্যাক, এশিয়ান এন্ড মাইনোরিটি এ্যাথনিক গ্রাজুয়েট ডিগ্রিধারীরা কর্মসংস্থান এবং বেতনের দিক দিয়ে পিছিয়ে আছে। বিশেষ করে বাংলাদেশী এবং পাকিস্তানি গ্রাজুয়েটরা ব্রিটিশ শ্বেতাঙ্গ গ্রাজুয়েটদের তুলনায় চাকুরী ক্ষেত্রে প্রায় ১২ শতাংশ পিছিয়ে। তবে বাংলাদেশী এবং পাকিস্তানীদের তুলনায় এগিয়ে আছে ইন্ডিয়ান এবং ব্ল্যাক ক্যারিবিয়ান গ্রাজুয়েটরা। ভারত এবং ব্ল্যাক ক্যারিবিয়ান গ্রাজুয়েটরা চাকুরীর ক্ষেত্রে মাত্র ৫ শতাংশ পিছিয়ে আছে। ব্রিটেনে এথনিক কমিউনিটির গ্রাজুয়েটধারী সংখ্যাও বাড়ছে বেশ ধীর গতিতে। ১৯৯৬-৯৯ সালে ব্রিটেনে বিএএমই কমিউনিটির গ্রাজুয়েটধারীর সংখ্যা ছিল মাত্র ১২ শতাংশ। ২০১৪ থেকে ১৭ সালে তা বেড়ে হয় ৩০ শতাংশ। তবে ১৯৯০ সালের পর থেকে ব্রিটেনে ভারত, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশী গ্রাজুয়েটধারীর সংখ্যা তিনগুন বেড়েছে। অর্থাৎ ভারতের ৫০ শতাংশ, পাকিস্তানের ৩০ শতাংশ এবং বাংলাদেশের ২৫ শতাংশ বেড়েছে। তবে একই সময় শ্বেতাঙ্গ ব্রিটিশ গ্রাজুয়েটধারীর সংখ্যাক ১২ শতাংশ থেকে বেড়ে ২৮ শতাংশে গেছে।

Ethnic minority graduates ‘face jobs gap’

 

Graduates from ethnic minorities in Britain are less likely to be in work than their white peers, a study says.

The Resolution Foundation found that despite a higher proportion of BAME (black, Asian and minority-ethnic) people obtaining degrees, they face “employment and pay penalties”.

Bangladeshi and Pakistani graduates are about 12% less likely to be employed than white British graduates.

Indian and Black Caribbean graduates have a jobs gap of about 5%.

The proportion of working-age people with degrees has increased across all ethnic groups, from 12% in 1996-99 to 30% in 2014-17.

Since the end of the 1990s, the numbers of working-age Indian, Pakistani and Bangladeshi people with degrees has more than trebled – to 50% 30% and 25% respectively.

The proportion of white British people with degrees has also increased over the same period, although less rapidly – up from 12% to 28%.

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement